বাংলা ট্রিবিউন
‘নারায়ণগঞ্জ হবে স্মার্ট সিটি, চলবে তিনটি মেট্রোরেল’

‘নারায়ণগঞ্জ হবে স্মার্ট সিটি, চলবে তিনটি মেট্রোরেল’

নারায়ণগঞ্জ জেলার ওপর দিয়ে তিনটি মেট্রোরেল চলাচল করবে বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সেইসঙ্গে নারায়ণগঞ্জ জেলা স্মার্ট সিটি হবে বলে উল্লেখ করেছেন তিনি। বৃহস্পতিবার (০৪ জানুয়ারি) বিকালে নারায়ণগঞ্জের ইসদাইর এলাকায় এ কে এম শামসুজ্জোহা স্টেডিয়ামে নির্বাচনি জনসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি। নারায়ণগঞ্জে তিনটি মেট্রোরেলের লাইন নির্মাণ করার কথা জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আজকে নারায়ণগঞ্জ অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি শহর। এখানে যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নতি করেছি। গত ১৫ বছরে অনেক উন্নয়ন করেছি। শীতলক্ষ্যা সেতুর ওপর দিয়ে তৃতীয় শীতলক্ষ্যা নাসিম ওসমান সেতু হয়েছে। গাজী সেতু, সুলতানা কামাল সেতু, মেঘনা সেতু, গোমতী সেতু নির্মাণ হয়েছে। তাছাড়া শামসুজ্জোহা সড়ক লিংক রোড, সেটা ছয়লেনে উন্নীত করা হয়েছে। এছাড়া নতুন সড়ক হয়েছে। পঞ্চবটি থেকে মুক্তারপুর পর্যন্ত সড়ক প্রশস্ত করা হয়েছে। ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের কাঁচপুর থেকে যাত্রাবাড়ী পর্যন্ত মহাসড়ক আটলেনে উন্নীত করা হয়েছে। ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে চারলেনে ভুলতা ফ্লাইওভার নির্মাণ করা হয়েছে। আমরা ঢাকায় মেট্রোরেল চালু করেছি। নারায়ণগঞ্জের ওপর দিয়ে তিনটি মেট্রোরেলের লাইন নির্মাণ করার পরিকল্পনা রয়েছে। এমআরটি লাইন-২, এমআরটি লাইন-৪ ও এমআরটি লাইন-১। এগুলো সবই নারায়ণগঞ্জের ওপর দিয়ে যাবে।’ নারায়ণগঞ্জ স্মার্ট সিটি হবে উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, ‘নারায়ণগঞ্জ জেলা যেহেতু ঢাকার খুব কাছে, তাই আমরা চাই নারায়ণগঞ্জ হবে স্মার্ট সিটি। এটিকে স্মার্ট জেলা করে দেবো। আড়াইহাজারে স্পেশাল ইকোনমিক জোন করে দিয়েছি। মেঘনা ইকোনমিক জোন করে দিয়েছি। ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ-ডেমরা এলাকায় পানি নিষ্কাশনের ব্যবস্থা করে দিয়েছি। বন্দর উপজেলার কদমরসুলে বর্জ্য শোধনাগার করে দিয়েছি। প্রত্যেক জেলায় বর্জ্য থেকে বিদ্যুৎ যেন উৎপাদন করা যায়, সে ব্যাপারে জোর দিচ্ছি। সিটি করপোরেশন যে উদ্যোগ নিয়েছে, আমরা সেখানে সমর্থন দিয়ে যাচ্ছি। প্রত্যেক জেলায় রেখ রাসেল পার্ক নির্মাণ করেছি। নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশ কার্যালয়ের অত্যাধুনিক ভবন নির্মাণ করা হয়েছে। ৫০০ আসন বিশিষ্ট অত্যাধুনিক অডিটোরিয়ামের জেলা শিল্পকলা একাডেমি ভবন নির্মাণ করা হয়েছে। চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ভবন নির্মাণ করা হয়েছে। র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব) কমপ্লেক্স নির্মাণ করা হয়েছে। পাগলা স্থল-কাম নদী ফায়ার স্টেশন, আঞ্চলিক পাসপোর্ট কার্যালয় ভবন নির্মাণ করা হয়েছে। নারায়ণগঞ্জে ৩০০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালকে ৫০০ শয্যায় উন্নীত করা হয়েছে। ফতুল্লা-আলীগঞ্জে সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের জন্য আটটি ১৫তলা বিশিষ্ট ৬৭২টি ফ্ল্যাট নির্মাণ করা হয়েছে। বাংলাদেশ পুষ্টি গবেষণা ও প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউট টিচার ট্রেনিং কলেজ একাডেমিক ভবন, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবন, আশ্রয়ণ প্রকল্পে নারায়ণগঞ্জ জেলায় ভূমিহীন-গৃহহীনদের জন্য ‍১২৯৯টি ঘর নির্মাণ করে পুনর্বাসন করা হয়েছে।’ জনসভায় আরও উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের, নারায়ণগঞ্জ-১ আসনের নৌকা প্রতীকের প্রার্থী বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী, নারায়ণগঞ্জ-২ আসনের নৌকা প্রতীকের প্রার্থী ও সংসদ সদস্য নজরুল ইসলাম বাবু, নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য এ কে এম শামীম ওসমান ও নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী প্রমুখ।
Published on: 2024-01-04 15:29:52.140867 +0100 CET

------------ Previous News ------------