বাংলা ট্রিবিউন
এসএসসি পরীক্ষায় বসেছে ২০ লাখ ২৪ হাজার শিক্ষার্থী

এসএসসি পরীক্ষায় বসেছে ২০ লাখ ২৪ হাজার শিক্ষার্থী

আজ বৃহস্পতিবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) থেকে সারা দেশে একযোগে এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা শুরু হয়েছে। লিখিত পরীক্ষা শেষ হবে আগামী ১২ মার্চ। এবার এসএসসি, দাখিল, এসএসসি (ভোকেশনাল) ও দাখিল (ভোকেশনাল) পরীক্ষায় ২৯ হাজার ৭৩৫টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের মোট পরীক্ষার্থী ২০ লাখ ২৪ হাজার ১৯২ জন। তারা দেশের ৩ হাজার ৭০০ কেন্দ্রে পরীক্ষায় অংশ নিচ্ছে। পরীক্ষার সময়সূচি অনুযায়ী, আজ প্রথম দিন ৯টি সাধারণ শিক্ষা বোর্ডের অধীনে এসএসসির বাংলা (আবশ্যিক) প্রথমপত্র পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে সকাল ১০টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত। আর এ দিন মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ডের অধীনে সকাল ১০টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত দাখিলের কোরআন মাজিদ ও তাজবিদ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। এছাড়া কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের অধীনে এসএসসি (ভোকেশনাল) ও দাখিলের (ভোকেশনাল) বাংলা-২ (১৯২১) ও বাংলা-২ (১৭২১) অনুষ্ঠিত হবে সকাল ১০টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত। সূচি অনুযায়ী এসএসসির লিখিত পরীক্ষা শেষ হবে ১২ মার্চ। আর ব্যবহারিক পরীক্ষা ১৩ মার্চ শুরু হয়ে শেষ হবে ২০ মার্চ। কারিগরির লিখিত পরীক্ষা শেষ হবে ১২ মার্চ। ব্যবহারিক পরীক্ষা ১৩ মার্চ শুরু হয়ে শেষ হবে ২১ মার্চ। দাখিল পরীক্ষা শেষ হবে ১৪ মার্চ। আর ব্যবহারিক পরীক্ষা ১৬ মার্চ শুরু হয়ে শেষ হবে ৩০ মার্চ। পরীক্ষা চলাকালে কেন্দ্রগুলোতে সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশ নিশ্চিতের লক্ষ্যে কিছু নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি)। ডিএমপি কমিশনার হাবিবুর রহমানের সই করা এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, পরীক্ষা চলাকালীন কেন্দ্রগুলোতে সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশ নিশ্চিতে কিছু নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে ডিএমপি। নিষেধাজ্ঞায় পরীক্ষা কেন্দ্রগুলোর ২০০ গজের মধ্যে পরীক্ষার্থী ছাড়া জনসাধারণের অনধিকার প্রবেশ সম্পূর্ণরূপে নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। যা পরীক্ষা চলা পর্যন্ত বলবৎ থাকবে। যদিও পরীক্ষা কেন্দ্রগুলোর সামনে এদিন ব্যাপক ভিড় দেখা গেছে। এদিকে শিক্ষার্থীদের ওপর চাপ সৃষ্টি ও ভোগান্তি কমাতে অন্যান্য বছরের মতো পরীক্ষা কেন্দ্র পরিদর্শনে যাচ্ছেন না শিক্ষামন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল। একইসঙ্গে পরীক্ষার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট নন এমন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারাও কেন্দ্র পরিদর্শনে যাবেন না। দীর্ঘদিনের রেওয়াজ ভেঙ্গে এই প্রথম কেন্দ্র পরিদর্শন থেকে বিরত থাকার আহ্বান জানিয়েছেন বর্তমান সরকারের নতুন শিক্ষামন্ত্রী নওফেল। এর আগে গত ২৮ জানুয়ারি পরীক্ষা সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করার লক্ষ্যে আইনশৃঙ্খলা কমিটিতে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়, ১৩ ফেব্রুয়ারি থেকে ১২ মার্চ পর্যন্ত সব কোচিং সেন্টার বন্ধ থাকবে। ওইদিন শিক্ষা মন্ত্রণালয় জানায়, এ বছর এসএসসি, দাখিল, এসএসসি (ভোকেশনাল) ও দাখিল (ভোকেশনাল) পরীক্ষায় ২৯ হাজার ৭৩৫টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ৩৭০০টি কেন্দ্রে ২০ লাখ ২৪ হাজার ১৯২ জন পরীক্ষার্থী অংশ নেবে। মন্ত্রণালয় আরও জানায়, কেন্দ্র সচিব ছাড়া পরীক্ষাকেন্দ্রে অন্য কেউ মোবাইল ফোন বা অননুমোদিত ইলেকট্রনিক ডিভাইস ব্যবহার করতে পারবেন না। কেন্দ্র সচিব ছবি তোলা ও ইন্টারনেট ব্যবহারের সুবিধাবিহীন একটি সাধারণ (ফিচার) ফোন ব্যবহার করতে পারবেন। অননুমোদিত ফোন বা ইলেকট্রনিক ডিভাইস ব্যবহারকারীদের বিরুদ্ধে বিধি অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এছাড়া সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রশ্নপত্র ফাঁস সংক্রান্ত গুজব কিংবা এ কাজে তৎপর চক্রগুলোর কার্যক্রমের বিষয়ে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী এবং সরকারের সংশ্লিষ্ট বিভাগগুলো নজরদারি জোরদার করবে। প্রশ্নপত্র ফাঁস কিংবা পরীক্ষার্থীদের কাছে উত্তর সরবরাহে জড়িত ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ও জেলা প্রশাসন কঠোর আইনগত ব্যবস্থা নেবে।
Published on: 2024-02-15 06:50:30.351875 +0100 CET

------------ Previous News ------------