বাংলা ট্রিবিউন
রওশনের ডাকা সম্মেলনে যাবেন না রংপুরের নেতারা

রওশনের ডাকা সম্মেলনে যাবেন না রংপুরের নেতারা

শনিবার ৯ মার্চ ঢাকায় রওশন এরশাদের নেতৃত্বাধীন জাতীয় পার্টির কাউন্সিলের ঘোষণা দেওয়া হলেও দলের দুর্গ হিসেবে পরিচিত রংপুরের নেতাকর্মীদের মাঝে এই নিয়ে বিন্দুমাত্র আগ্রহ নেই। অনেক চেষ্টা করেও রওশন এরশাদের পক্ষে তার ছেলে রংপুর সদর-৩ আসনের সাবেক এমপি সাদ এরশাদ তৃণমূল পর্যায়ের কোনও নেতাকে ঢাকার কাউন্সিলে নেওয়ার জন্য রাজি করাতে পারেননি বলে সূত্র জানিয়েছে। এদিকে, রংপুর জেলা জাপার শীর্ষ নেতাদের দাবি, রংপুর কেন পুরো বিভাগ থেকে একজন নেতাকর্মীও রওশন এরশাদের ডাকা ‘অবৈধ’ কাউন্সিলে যাবে না। রওশন এরশাদের ডাকা কাউন্সিল ও সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির যুগ্ম আহ্বায়ক জেলা জাপার সাবেক নেতা ও কেন্দ্রীয় প্রেসিডিয়াম সদস্য ফকরুজ্জামান জাহাঙ্গীর জানান, তার নির্বাচনি এলাকা রংপুরের মিঠাপুকুর ও সাদ এরশাদের সমর্থকসহ সবমিলিয়ে শতাধিক তৃণমূল সমর্থক সম্মেলনে যোগ দেবেন। এই বিষয়ে জানতে তার সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, বর্তমানে ঢাকায় অবস্থান করছেন। সম্মেলনে রংপুর থেকে নেতাকর্মী আসার সম্ভাবনা কম। তবে শতাধিক তৃণমূল পর্যায়ের কর্মী-সমর্থক আসবেন। রওশনপন্থি এই নেতা বলেন, ‘আমি প্রথম দিক থেকে ম্যাডামের সঙ্গে আছি। যেহেতু ৭ জানুয়ারির সংসদ নির্বাচনে ম্যাডাম ও তার ছেলে সাদসহ বেশিরভাগ নেতাকর্মী অংশ নেয়নি সে কারণে আমিও রংপুর-৫ আসনে প্রার্থী হইনি। তবে নির্বাচনে অংশ নেওয়া উচিত ছিল। কারণ এতে তৃণমূল পর্যায়ের নেতাকর্মী ও সমর্থকদের সঙ্গে গ্যাপ তৈরি হয়।’ অপর এক প্রশ্নে তিনি বলেন, ‘রওশন এরশাদের সঙ্গে থাকার কারণে আমার প্রেসিডিয়াম সদস্যের পদটি স্থগিত করে দিয়েছেন জাপা চেয়ারম্যান জি এম কাদের।’ সম্মেলন কেমন হবে- এমন প্রশ্নে তাকে হতাশই মনে হয়েছে। তিনি বলেন, ‘এসব করে কোনও লাভ হবে বলে মনে হয় না। তবে রওশন এরশাদের সঙ্গে আছি ও থাকবো।’ এদিকে, রংপুর জেলা জাতীয় পার্টির সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রাজ্জাক জানান, রওশন এরশাদ জাতীয় পার্টির কোনও পদধারী নেত্রী নন। সম্মেলন বা কাউন্সিল ডাকার তার কোনও অধিকার নেই। আর রংপুরসহ বিভাগের একজন নেতাকর্মীও তার সঙ্গে নেই এবং তার ডাকা সম্মেলনে কেউ যাবে না।’ অন্যদিকে, জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় ভাইস চেয়ারম্যান ও রংপুর মহানগর জাপার সাধারণ সম্পাদক এস এম ইয়াসির জানান, শনিবার জাতীয় পার্টির কোনও সম্মেলন হচ্ছে না। এটা রওশন এরশাদের সম্মেলন। দলের গঠনতন্ত্র অনুযায়ী সম্মেলন আহ্বান করার কোনও এখতিয়ার তার নেই। তিনি বলেন, ‘নির্বাচন কমিশনের একটি নিবন্ধিত দল জাতীয় পার্টি। ১২ নম্বরে এই দলের অবস্থান। আমাদের দলের প্রতীক লাঙ্গল। দলের চেয়ারম্যান জি এম কাদের, মহাসচিব মুজিবুল হক চুন্নু। তা ছাড়া রওশন এরশাদ স্বঘোষিত চেয়ারম্যান ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশনে নিবন্ধন পাওয়ার যে আবেদন করেছিলেন- নির্বাচন কমিশন তাদের আবেদন সরাসরি খারিজ করে দিয়েছে। ফলে রওশন এরশাদের ডাকা সম্মেলনে রংপুর ও পুরো বিভাগের একজন নেতাকর্মীও সেখানে যাবে না।’ অন্যদিকে জাপার তৃণমূল পর্যায়ের নেতাকর্মীদের সঙ্গে যোগাযোগ করে জানা গেছে, কেউই রওশন এরশাদের ডাকা সম্মেলনে যাবেন না। এদিকে, রওশনপন্থি নেতা হিসেবে পরিচিত জাপার সাবেক মহাসচিব ও বিরোধী দলীয় চিফ হুইপ মসিউর রহমান রাঙ্গা ইতিমধ্যেই ঘোষণা দিয়েছেন তিনি এই সম্মেলনে অংশ নেবেন না। সম্মেলনকে বৈধ বলে মনে করেন না তিনি। তার দাবি, দলের গঠনতন্ত্র অনুযায়ী রওশন এরশাদ সম্মেলন আহ্বানই করতে পারেন না। তবে আবারও জি এম কাদেরের নেতৃত্বে দলে ফিরতে চান বলে ইঙ্গিত দিয়েছেন।
Published on: 2024-03-08 15:06:23.909162 +0100 CET

------------ Previous News ------------