ইত্তেফাক
উদীয়মান বৈশ্বিক পরাশক্তি হিসেবে ভারতকে সমর্থন করে যুক্তরাষ্ট্র

উদীয়মান বৈশ্বিক পরাশক্তি হিসেবে ভারতকে সমর্থন করে যুক্তরাষ্ট্র

*উদীয়মান বৈশ্বিক পরাশক্তি হিসেবে ভারতকে সমর্থন করার কথা জানিয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। শান্তিপূর্ণ, স্থিতিশীল এবং সমৃদ্ধ ইন্দো-প্যাসিফিক অঞ্চলের প্রচারে নয়া দিল্লিকে গুরুত্বপূর্ণ অংশীদার মনে করে ওয়াশিংটন। খবর এএনআইএর।* দেশটি বলেছে, মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তরের প্রকাশিত একটি ফ্যাক্ট শীট অনুসারে, মার্কিন-ভারত সম্পর্ক ২১ শতকের সবচেয়ে কৌশলগত এবং গর্বের। ফ্যাক্ট শীটে বলা হয়েছে, মার্কিন পররাষ্ট্র ও প্রতিরক্ষা সচিব এবং তাদের ভারতীয় প্রতিপক্ষের মধ্যে টু প্লাস টু মন্ত্রী পর্যায়ের সংলাপ হল মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এবং ভারতের মধ্যে প্রধান পুনরাবৃত্ত সংলাপ প্রক্রিয়া। এই প্রক্রিয়ার মাধ্যমে যুক্তরাষ্ট্র এবং ভারতীয় কর্মকর্তারা ওয়াশিংটন-দিল্লি অংশীদারিত্বের গভীরত্বে বিস্তৃত উদ্যোগের অগ্রগতি করেছে। ইতোমধ্যে মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিঙ্কেন শুক্রবার পঞ্চম ভারত-মার্কিন টু প্লাস টু মন্ত্রী পর্যায়ের সংলাপের সহ-সভাপতিত্ব করতে নয়াদিল্লিতে পৌঁছেছেন। ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র অরিন্দম বাগচি বলেছেন, ব্লিঙ্কেনের সফর ভারত-মার্কিন বৈশ্বিক কৌশলগত অংশীদারিত্বকে আরও উত্সাহিত করবে। এর আগে বৃহস্পতিবার মার্কিন প্রতিরক্ষা সচিব লয়েড অস্টিনও ভারত-মার্কিন টু প্লাস টু মন্ত্রী পর্যায়ের সংলাপে যোগ দিতে দুই দিনের সফরে নয়াদিল্লিতে পৌঁছেছেন। মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তরের প্রিন্সিপাল ডেপুটি মুখপাত্র বেদান্ত প্যাটেল বলেছেন, ‘মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিঙ্কেন এবং মার্কিন প্রতিরক্ষা সচিব লয়েড অস্টিন টু প্লাস টু নিরাপত্তা সংলাপের অংশ হিসেবে নয়াদিল্লি সফর করছেন। আমাদের নিরাপত্তা সহযোগিতাকে কীভাবে আরও গভীর করা যায় এটিই সংলাপের মূল বিষয়।’ সংলাপটি ভারত-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলে উদ্ভূত উন্নয়নের ওপর বিশেষ জোর দিবে। পাশাপাশি সমালোচনামূলক দ্বিপাক্ষিক এবং বৈশ্বিক বিষয়গুলোকে প্রাধান্য দিয়ে যুক্তরাষ্ট্র ও ভারতের মধ্যে শীর্ষ-স্তরের আলোচনার জন্য নতুন জায়গা তৈরি করবে। টু প্লাস টু মন্ত্রী পর্যায়ের সংলাপ হল একটি কূটনৈতিক শীর্ষ সম্মেলন যা ২০১৮ সাল থেকে প্রতি বছর অনুষ্ঠিত হয়ে আসছে। আলোচনায় পররাষ্ট্রমন্ত্রী এবং প্রতিরক্ষা মন্ত্রী ভারতের প্রতিনিধিত্ব করেন এবং স্টেট সেক্রেটারি ও প্রতিরক্ষা সচিব মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিনিধিত্ব করেন। দুই দেশের মধ্যে উদ্বেগের সাধারণ বিষয় নিয়ে আলোচনার কেন্দ্রবিন্দু এই সংলাপ।
Published on: 2023-11-10 11:02:28.940525 +0100 CET