ইত্তেফাক
নির্বাচন বানচালের ষড়যন্ত্র হচ্ছে

নির্বাচন বানচালের ষড়যন্ত্র হচ্ছে

*আওয়ামী লীগের উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য, ১৪ দলের সমন্বয়ক ও মুখপাত্র আমির হোসেন আমু এমপি বলেছেন, ‘আগামী নির্বাচনে বিএনপি-জামায়াতের ভরাডুবি হবে জেনে তারা নির্বাচন বানচালের ষড়যন্ত্র করছে। শেখ হাসিনার বিকল্প কোনও নেতৃত্ব নেই এই দেশে।’ তিনি বলেন, ‘ষড়যন্ত্র শেখ হাসিনার বিরুদ্ধে নয়, বিএনপি ষড়যন্ত্র করছে দেশের মানুষের বিরুদ্ধে। আগামী দিনে শেখ হাসিনাকে বিজয়ী করে দেশের উন্নয়ন অগ্রযাত্রা বজায় রাখতে হবে।’* মঙ্গলবার বিকালে রাজধানীর কামরাঙ্গীরচর হাসপাতাল মাঠে ১৪ দলের শান্তি ও উন্নয়ন সমাবেশে তিনি এসব কথা বলেন। আমির হোসেন আমু বলেন, ‘আওয়ামী লীগ এই দেশের তৃণমূল থেকে গঠিত একটি দল। তারা দেশের মানুষের হৃৎস্পন্দন বুঝতে পারে। তাইতো ইসরায়েলের হামলার বিরুদ্ধে শেখ হাসিনা কথা বলেছেন, যেখানে বিএনপি ইসরায়েলকে সমর্থন করছে।’ তিনি বলেন, ‘শেখ হাসিনার সরকার এই দেশের মানুষকে খাদ্য নিরাপত্তা দিয়েছে। বর্তমানে দেশের কোনও মানুষ এখন না খেয়ে থাকে না। যে বাংলাদেশ ছিল দুর্ভিক্ষের দেশ, সেই বাংলাদেশ আজ মাথা উঁচু করে দাঁড়িয়েছে। আমাদের দেশের কোনও মানুষ এখন না খেয়ে থাকে না। শেখ হাসিনার সরকার এই দেশের মানুষের খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করেছে। মানুষের ভাগ্য পরিবর্তনের জন্যে কাজ করেছে। গ্রামীণ অর্থনীতি আমাদের সুদৃঢ় হয়েছে।’ আমু বলেন, ‘গ্রামের মানুষের খাদ্য ও পুষ্টি নিরাপত্তা নিশ্চিত হয়েছে। পুরুষদের পাশাপাশি গ্রামীণ নারীরা আর্থসামাজিক কাজে সংযুক্ত হওয়ার মাধ্যমে দারিদ্র্য বিমোচনে ভূমিকা রাখছে। তারা পরিবার ও সমাজের আয়-উৎপাদনমূলক কর্মকাণ্ড বাড়াচ্ছেন। ফলে দেশে এখন দরিদ্র নেই বললেই চলে।’ দেশের রাজনীতি নিয়ে বিদেশিদের তৎপরতার বিষয়ে সতর্ক করে বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন বলেন, ‘ভিসানীতি নিয়ে স্যাংশনের ভয় যারা দেখাচ্ছিল, তারা এখন চিঠি নিয়ে ঘুরছে। তারা শর্তহীন সংলাপ করতে বলে। তবে সংলাপের আগে বিএনপি-জামায়াতের একদফা পরিত্যাগ করতে হবে। তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দাবি ছাড়তে হবে।’ বিএনপি-জামায়াত রাজপথ ছেড়ে পালিয়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘আমরা পালাইনি, পালিয়েছেন আপনারা। এই সরকার পালাবে না। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে এই দেশে সরকার কায়েম করে দেশের উন্নয়ন অগ্রযাত্রা চলমান রাখবে।’ জাতীয় পার্টি-জেপি’র মহাসচিব শেখ শহীদুল ইসলাম বলেন, নির্বাচন বানচালের ষড়যন্ত্র রুখে দিতে মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের সকল শক্তিকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে।’ আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য কামরুল ইসলাম বলেন, ‘শেখ হাসিনার উন্নয়নের কথা সারা দিন বলেও শেষ করা যাবে না। আমরা এই উন্নয়নের ধারাকে এগিয়ে নিতে চাই।’ আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া বীরবিক্রম বলেন, অপশক্তি নির্বাচন সামনে রেখে দেশকে অস্থিতিশীল করার চেষ্টা করছে।তারা নির্বাচন বানচাল করতে চায়। তারা দেশে নৈরাজ্য করে অগ্রযাত্রা থামিয়ে দিতে চায়। জাতীয় পার্টি-জেপি’ যুগ্ম মহাসচিব ও জাতীয় যুব সংহতির কেন্দ্রীয় সভাপতি অ্যাডভোকেট এনামুল ইসলাম রুবেল বলেন, ‘এই দেশের একটি গোষ্ঠীর উন্নয়ন অগ্রযাত্রা সহ্য হয় না। তারা দেশের উন্নয়নকে বাধা দিতে চায়, এদের রুখে দিতে ঐক্যবদ্ধ প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে।’
Published on: 2023-11-14 16:07:17.374055 +0100 CET