ইত্তেফাক
বিএনপিকে হয়রানি করলে ছাড়াছাড়ি নাই: কাদের সিদ্দিকী

বিএনপিকে হয়রানি করলে ছাড়াছাড়ি নাই: কাদের সিদ্দিকী

*কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সভাপতি বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী বলেছেন, বিএনপি নির্বাচনে না এসে অন্যায় করেনি। নির্বাচনে আসা না আসার সিদ্ধান্ত নেওয়ার স্বাধীনতা তাদের আছে। তাই বলে নির্বাচনকে কেন্দ্র করে বিএনপিকে হয়রানি করা যাবে না।* বৃহস্পতিবার (২১ ডিসেম্বর) টাঙ্গাইলের সখীপুরে নির্বাচনী পথসভায় বিএনপির কর্মীদের হয়রানি করলে ছেড়ে কথা বলবেন না হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে এ ধরনের মন্তব্য করেন বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী। তিনি বলেন, ‘বিএনপি ডাকাতি করলে থানায় ধরে নেবে, মারামারি করলে ধরে নেবে। কিন্তু বিএনপি করে বলে আগের মামলায় এখন ধরে নেবে, তা হবে না। একজন বিএনপির কর্মীকে থানায় ধরে নিলে আমি কিন্তু নিজে গিয়ে থানার সামনে দাঁড়াব। এজন্য সরকারকে বলছি, একটু সাবধান।’ এসময় প্রশ্ন রেখে তিনি বলেন, ‘বিএনপি নির্বাচনে আসে নাই। এটা কি তারা অন্যায় করেছে? ইচ্ছা হলে নির্বাচনে অংশ নেবে, ইচ্ছা না হলে নেবে না—এটা তাদের সিদ্ধান্ত। এ নির্বাচনে বিএনপিকে হ্যারাস করলে ছাড়াছাড়ি নাই। যদি হ্যারাস করা হয়, তাহলে খবর আছে। অনেক ক্ষতি হবে।’ ভোটারদের উদ্দেশে কাদের সিদ্দিকী বলেন, ‘আপনারা সবাই ভোটকেন্দ্রে যাবেন। যাকে খুশি তাকে ভোট দেবেন। এবার আমি দেখতে চাই, ভোটাররা ভোট দিতে পারে কি-না।’ নারী ভোটারদের উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘আমি মা-বোনদের উদ্দেশে বলব, আপনারা ভোটকেন্দ্রে যাবেন। গামছা মার্কায় ভোট দেবেন। একটা পরিবারে একজন মা যদি আমাকে সমর্থন করে, তাহলে ওই পরিবারে আরও সাতজন আমাকে সমর্থন করবে।’ কাদের সিদ্দিকী ছাড়াও পথসভায় বক্তব্য দেন তার সহধর্মিণী নাসরিন সিদ্দিকী, মেয়ে কুঁড়ি সিদ্দিকী, উপজেলা কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সাধারণ সম্পাদক সানোয়ার হোসেন, কেন্দ্রীয় যুব আন্দোলনের সভাপতি হাবিবুন্নবী সোহেল প্রমুখ।
Published on: 2023-12-21 17:52:28.317106 +0100 CET