ইত্তেফাক
আন্তর্জাতিক আদালতে ইসরায়েলের বিরুদ্ধে দক্ষিণ আফ্রিকার পদক্ষেপে বাংলাদেশের সমর্থন

আন্তর্জাতিক আদালতে ইসরায়েলের বিরুদ্ধে দক্ষিণ আফ্রিকার পদক্ষেপে বাংলাদেশের সমর্থন

*গাজায় গণহত্যা সংঘটনের জন্য ইসরায়েলের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক বিচার আদালতে (আইসিজে) দক্ষিণ আফ্রিকার আবেদনের প্রতি সমর্থন জানিয়েছে বাংলাদেশ। রোববার এ বিষয়ে বিবৃতি দেয় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।* জাতিসংঘের ১৯৪৮ সালের গণহত্যা সনদের আওতায় ইসরায়েলের বিরুদ্ধে আইসিজে এই আইনি কার্যক্রম শুরুর আবেদন করেছে দক্ষিণ আফ্রিকা। বিবৃতিতে বলা হয়, বাংলাদেশ অস্থায়ী পদক্ষেপের ইঙ্গিতের জন্য দক্ষিণ আফ্রিকার অনুরোধকেও সমর্থন করে, যার মধ্যে গাজার অভ্যন্তরে ও গাজার বিরুদ্ধে সব সামরিক অভিযান স্থগিত করা এবং গাজার সব এলাকায় নিরাপদ, পর্যাপ্ত ও নিরবচ্ছিন্ন মানবিক সহায়তার অনুমতি দেওয়ার অনুরোধ অন্তর্ভুক্ত রয়েছে। ইসরায়েলি প্রতিরক্ষা বাহিনীর অব্যাহত হামলায় হাজার হাজার নিরীহ ফিলিস্তিনি বেসামরিক নাগরিক প্রাণ হারিয়েছেন, যাঁদের অধিকাংশই নারী ও শিশু। বিবৃতিতে বলা হয়, বাংলাদেশ এই পরিকল্পিত আগ্রাসনকে গণহত্যা সনদসহ আন্তর্জাতিক আইনের জন্য স্পষ্ট অবজ্ঞা ও লঙ্ঘন বলে মনে করে। গণহত্যা সনদের রাষ্ট্রপক্ষ হিসেবে বাংলাদেশ গণহত্যার অপরাধ প্রতিরোধ ও শাস্তি বিধানের জন্য গণহত্যা সনদের অধীনে বাধ্যবাধকতাকে সম্মান করার জন্য সব রাষ্ট্রকে আহ্বান জানায়। বিবৃতিতে বলা হয়, বাংলাদেশ অবিলম্বে যুদ্ধবিরতি এবং গাজায় দ্রুত, নিরাপদ ও বাধাহীনভাবে জীবন রক্ষাকারী সহায়তা পাঠানোর আহ্বান পুনর্ব্যক্ত করেছে। বিবৃতিতে আরও বলা হয়, বাংলাদেশ ফিলিস্তিনের ওপর ইসরায়েলের দখলদারির অবসান এবং একটি টেকসই ও স্থায়ী সমাধানের জন্য তার আহ্বান পুনর্ব্যক্ত করেছে। আগের আহ্বানে জেরুজালেমকে রাজধানী করে ১৯৬৭-এর পূর্ববর্তী সীমানা অনুযায়ী একটি সার্বভৌম ও স্বাধীন ফিলিস্তিনি রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার কথা বলা হয়েছে।
Published on: 2024-01-15 20:19:30.613255 +0100 CET