ইত্তেফাক
কিছু মহল চক্রান্ত করে দ্রব্যমূল্য বাড়াচ্ছে: প্রধানমন্ত্রী

কিছু মহল চক্রান্ত করে দ্রব্যমূল্য বাড়াচ্ছে: প্রধানমন্ত্রী

*কিছু কিছু মহল ‘চক্রান্ত করে’ দ্রব্যমূল্য বাড়াচ্ছে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, কিছু কিছু মহল আছে যারা চক্রান্ত করে মূল্যস্ফীতি বাড়ায়। তবে মানুষের ক্রয়ক্ষমতাও বৃদ্ধি পেয়েছে, এটাও সত্যি, আগে এত ক্রয় ক্ষমতা ছিল না।* সোমবার (২২ জানুয়ারি) প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের জরুরি সভায় তিনি এ কথা বলেন। রোজা সামনে রেখে প্রয়োজনীয় নিত্যপণ্য আগাম কিনে রাখা হবে জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, সামনে রোজা- রোজার জন্য যা দরকার সবই আমরা আগাম ক্রয় করার ব্যবস্থা নিয়েছি। আর আমরা সব সময় যারা হত দরিদ্র, তাদের জন্য বিনা পয়সায় খাদ্য সাহায্য দিয়ে আসছি, সেই ব্যবস্থাও থাকবে। তিনি বলেন, খাদ্য উৎপাদনে আমাদের কোনো সমস্যা নেই। তারপরও যে সমস্ত জিনিস আমাদের কিনতে হয়, যেমন ভোজ্য তেল, গম, জ্বালানি তেল, গ্যাস আমাদের আনতে হয়। আমরা সারাদেশে প্রত্যেক বাড়িতে বিদ্যুৎ দিয়েছি, এখন গ্যাসের চাহিদা আছে। আমাদের সার কারখানাগুলো, সেখানে গ্যাসের চাহিদা আছে, সেসব ক্ষেত্রে আমরা ব্যবস্থা নিচ্ছি, আগাম ব্যবস্থা নিচ্ছি। যারা পণ্য মজুত করে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানান প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেন, অস্বাভাবিকভাবে ও দুরভিসন্ধি করে যারা পণ্য মজুত করে, মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে অভিযান চালিয়ে তাদের শাস্তির ব্যবস্থা করা হবে। প্রয়োজনে জেলে পাঠিয়ে দেওয়া হবে। দেশে আর কখনো অস্বাভাবিক পরিস্থিতি সৃষ্টি হতে দেওয়া হবে না। হেরে যাবে জেনেই বিএনপি নির্বাচনে আসেনি উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, আসলে আমাদের বিরুদ্ধে যে দল, তারা তো গণতান্ত্রিক পরিবেশে নির্বাচন করে অভ্যস্ত না। জাতীয় ও আন্তর্জাতিকভাবে যে সকল জরিপ হয়েছিল, সেখানে বিএনপি তাদের জোট নিয়ে নির্বাচনে অংশ নিলে সরকার গঠন করবে না, সেই সংখ্যক সিট তারা পাবে না, এটা উঠে এসেছিল। একমাত্র আওয়ামী লীগই সরকার গঠনের জন্য পর্যাপ্ত সিট পাবে। সেই কথা শোনার পরে তারা নির্বাচনে আসবে না, এটা তো স্বাভাবিক। তাছাড়া ওদের সৃষ্টি হচ্ছে অবৈধভাবে অস্ত্র হাতে নিয়ে ক্ষমতা দখল করা, জনগণের ভোট চুরি করা। এসব কালচার তো বিএনপির আমলেই সৃষ্টি, বলেন তিনি। যারা নির্বাচন বানচাল করতে চায়, তারা গণতান্ত্রিক পরিবেশ চায় না উল্লেখ করে আওয়ামী লীগ সভাপতি বলেন, সামনে উপজেলা নির্বাচন, নির্বাচন কীভাবে করব সেটা নিয়ে সভায় আলোচনা হবে। দেশের একটা গোষ্ঠী অস্বাভাবিক পরিস্থিতি তৈরি করতে চাচ্ছে; কিন্তু এ বাংলাদেশে আর কোনোদিন অস্বাভাবিক পরিস্থিতি হতে দেওয়া হবে না। অপশক্তিকে রাজনৈতিকভাবে মোকাবিলা করতে হবে।
Published on: 2024-01-22 17:01:35.390761 +0100 CET