ইত্তেফাক
মার্চের শুরুতে বাড়তে পারে মন্ত্রিসভার আকার

মার্চের শুরুতে বাড়তে পারে মন্ত্রিসভার আকার

*শিগগিরই মন্ত্রিসভায় যুক্ত হতে পারে নতুন মুখ। মার্চ মাসে নতুন মুখ যুক্ত হলে বাড়বে মন্ত্রিসভার আকার। এ যাত্রায় পূর্ণ মন্ত্রীর চেয়ে প্রতিমন্ত্রী ও উপমন্ত্রীই বেশি হতে পারেন। সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।* দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পর গত ১১ জানুয়ারি ৩৭ সদস্যের নতুন মন্ত্রিসভা গঠন করা হয়। অন্যান্য বারের তুলনায় এ মন্ত্রিসভার আকারে অনেক ছোট। তাই অল্পদিনের মধ্যে মন্ত্রিসভার আকার বাড়বে এটি অনেকটাই নিশ্চিত ছিল। তবে কবে বাড়বে মন্ত্রিসভার আকার এ নিয়ে সুনির্দিষ্ট তারিখ কেউ বলতে পারছেন না। প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন জ্যেষ্ঠ মন্ত্রী জানিয়েছেন, খুব শিগগির মন্ত্রিসভার এই সম্প্রসারণ হতে পারে। এই বিষয়ে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগও প্রাথমিক প্রস্তুতি নিয়ে রেখেছে বলে জানা গেছে। কোনো কোনো ক্ষেত্রে কারা মন্ত্রিসভায় আসছেন সে সম্পর্কে অনুমান করে অনেকে বলছেন, ৬-৭ জন নতুন মুখ যুক্ত হতে পারেন। এক্ষেত্রে পূর্ণ মন্ত্রী যুক্ত হওয়ার সম্ভাবনা কম। যারা আসবেন বলে মনে করা হচ্ছে তারা প্রতিমন্ত্রী ও উপমন্ত্রী হিসেবেই মন্ত্রিসভায় যুক্ত হতে পারেন। আওয়ামীলীগের একজন মন্ত্রী বলেন, মন্ত্রিসভায় যারা যুক্ত হবেন তাদের মধ্যে অন্তত ৩ জন সংরক্ষিত নারী আসনের সংসদ সদস্য হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। ৪৮ জন সংরক্ষিত নারী সদস্য মনোনয়ন দিয়েছিল ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ। সংসদের বিরোধী দল জাতীয় পার্টি দিয়েছে দুজনকে। প্রতিদ্বন্দ্বী না থাকায় ৫০ জনই বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়ী হয়েছেন। গতকাল মঙ্গলবার পরিপত্রও জারি করা হয়েছে। এখন শপথ নিলেই তারা সংসদে যোগ দিতে পারবেন। বর্তমান মন্ত্রিসভায় প্রধানমন্ত্রী বাদে পূর্ণ মন্ত্রী রয়েছেন ২৫ জন এবং প্রতিমন্ত্রী ১১ জন। ৩৭ সদস্যের এই মন্ত্রিসভায় কোনো উপমন্ত্রী নেই। এর আগের মন্ত্রিসভায় পূর্ণ মন্ত্রী এবারের মতোই ২৫-২৬ জনে সীমাবদ্ধ ছিল। তবে প্রতিমন্ত্রী ছিলেন ২০ জনের মতো। এ ছাড়া তিনজন উপমন্ত্রী ছিলেন। সব মিলিয়ে আগের মন্ত্রিসভা ছিল ৪৯ সদস্যের। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের এক নেতা ও মন্ত্রী গণমাধ্যমকে বলেন, গত মন্ত্রিসভার আকার ছিল ৪৯ জনের। এদের মধ্যে প্রধানমন্ত্রী ছাড়া ২৫ জন ছিলেন পূর্ণ মন্ত্রী, ২০ জন প্রতিমন্ত্রী ও তিন জন ছিলেন উপমন্ত্রী। এবারও মন্ত্রিসভা সম্প্রসারণ হয়ে এমন সংখ্যায় দাঁড়াতে পারে। তবে সম্ভাব্য মার্চে যে সম্প্রসারণের কথা ভাবা হচ্ছে সেখানে একবারেই হয়ত এই সংখ্যায় পৌঁছানো হবে না। এদিকে আওয়ামী লীগের কয়েকজন দায়িত্বশীল নেতা জানান, এবারের মন্ত্রিসভার আকার বেশ ছোট। বিশেষ করে গুরুত্বপূর্ণ বা বড় মন্ত্রণালয়গুলোয় মন্ত্রী থাকলেও সবকটিতে প্রতিমন্ত্রী নেই। যেমন: পররাষ্ট্র, অর্থ, পরিকল্পনা, স্থানীয় সরকার, পানি সম্পদ, স্বরাষ্ট্র, শিক্ষা, স্বাস্থ্য গণপূর্ত। আবার বড় একটি মন্ত্রণালয়ে (ডাক ও টেলিযোগাযোগ) প্রতিমন্ত্রী আছেন কিন্তু মন্ত্রী নেই। এসব মন্ত্রণালয় নিয়ে ভাবা হচ্ছে। এর আগে গত ১২ ফেব্রুয়ারি মন্ত্রিসভার পরিধি বাড়ার বিষয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘এটা প্রধানমন্ত্রী বলতে পারেন, তবে এখানে সময়মতো কিছু জায়গায়, যেমন: শ্রম মন্ত্রণালয় ও সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়, (যেখানে এখনও মন্ত্রী ও প্রতিমন্ত্রী দেওয়া হয়নি) এগুলোতে কোনো না কোনো সময় মন্ত্রী আসবে। এটা আমার মনে হয় সংরক্ষিত মহিলা আসনগুলো আসার পরে, মন্ত্রী আসতে পারে। সেই হিসেবে এর পরে চিন্তাভাবনা। প্রধানমন্ত্রীর এখতিয়ারে তিনি এটা করবেন।’
Published on: 2024-02-28 08:47:12.367478 +0100 CET