ইত্তেফাক
‘জলদস্যুরা মোবাইল নিয়ে নিচ্ছে, আর কথা হবে না’

‘জলদস্যুরা মোবাইল নিয়ে নিচ্ছে, আর কথা হবে না’

*ভারত মহাসাগরে বাংলাদেশি পণ্যবাহী একটি জাহাজ এবং ২৩ নাবিক ও ক্রুকে আটক করেছে সোমালিয়ান জলদস্যুরা। ভুক্তভোগীদের মধ্যে রয়েছেন চট্টগ্রামের নাবিক মোহাম্মদ শামসুদ্দিন। শামসুদ্দিনের বাড়ি চট্টগ্রামের আনোয়ারা উপজেলার বৈরাগ ইউনিয়নের সেন্টার এলাকায়।* নাবিক শামসুদ্দিন তার স্ত্রী ফারজানাকে বলেন, ‘জলদস্যুরা মোবাইল নিয়ে নিচ্ছে, আর কথা হবে না।’ এ কথা বলতে বলতেই সংযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। মঙ্গলবার (১২ মার্চ) বিকালে স্বামীর সঙ্গে তার কথা হয়। শামসুদ্দিন ও ফারজানা দম্পতির তিন মেয়ে। দুই মেয়ে স্কুলে পড়ে, ছোট মেয়ের বয়স ১৪ মাস। নাবিক শামসুদ্দিনের স্ত্রী ফারজানা আরও বলেন, সে জানিয়েছে ‘জাহাজে জলদস্যু উঠতে চেষ্টা করছে, দোয়া করিও, আমাদের জন্য দুশ্চিন্তা করিও না।’ চট্টগ্রামের কবির গ্রুপের মালিকানাধীন ২৩টি জাহাজের একটি এমভি আবদুল্লাহ। এর পণ্য পরিবহন ক্ষমতা ৫৮ হাজার টন। জাহাজটি কবির গ্রুপের সহযোগী সংস্থা এসআর শিপিং লিমিটেডের। মোজাম্বিকের মাপুতু বন্দর থেকে সংযুক্ত আরব আমিরাতে যাওয়ার পথে বাংলাদেশ সময় বেলা দেড়টায় জাহাজটিতে উঠে নিয়ন্ত্রণ নেয় সোমালিয়ার জলদস্যুরা। জাহাজটিতে ৫৫ হাজার টন কয়লা রয়েছে। জাহাজে থাকা ২৩ নাবিকের সবাই বাংলাদেশি।
Published on: 2024-03-13 09:21:41.844334 +0100 CET