যায়যায়দিন
বিএনপির সমাবেশ নিয়ে নিরাপত্তার শঙ্কা নেই : ডিবিপ্রধান

বিএনপির সমাবেশ নিয়ে নিরাপত্তার শঙ্কা নেই : ডিবিপ্রধান

*ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) অতিরিক্ত কমিশনার (ডিবি) মো. হারুন অর রশীদ বলেছেন, আগামী ২৮ অক্টোবর বিএনপির ডাকা সমাবেশ ঘিরে কোনো ধরনের নাশকতার আশঙ্কা নেই। ডিএমপি কমিশনার কর্তৃক যে রাজনৈতিক দলই সমাবেশ করার অনুমতি পাবেন তাদের পর্যাপ্ত নিরাপত্তা দেবে পুলিশ। কোনো ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা যাতে না ঘটে সেজন্য পুলিশ কাজ করবে।* তিনি বলেন, আমাদের নিয়মিত চেকপোস্ট, টহল অভিযান চলবে। মামলা, ওয়ারেন্টের আসামি ধরার অভিযান অব্যাহত থাকবে। কোনো ধরনের রাজনৈতিক নেতাকর্মীকে গ্রেপ্তারের নামে হয়রানি করা হচ্ছে না। রোববার (২২ অক্টোবর) সকালে ডিএমপি মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন। সরকার পতনের এক দফা আন্দোলনে থাকা বিএনপি আগামী ২৮ অক্টোবর শনিবার ঢাকায় মহাসমাবেশ ডেকেছে। সেদিন নয়াপল্টনে কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে মহাসমাবেশ করতে ইতোমধ্যে ডিএমপির কাছে আবেদন করেছে বিএনপি। ডিএমপির পক্ষ থেকে এ ব্যাপারে এখনো কিছু জানানো হয়নি। একই দিন জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমের দক্ষিণ গেটে সমাবেশে ডেকেছে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ। সেখানে দলীয় প্রধান ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রধান অতিথি হিসেবে যোগ দেওয়ার কথা রয়েছে। একই দিন কাছাকাছি জায়গায় বড় দুই দলের পাল্টাপাল্টি সমাবেশকে কেন্দ্র করে উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে রাজনীতি। এই অবস্থায় আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি সম্পর্কে জানাতে সংবাদ সম্মেলনে আসেন নগর পুলিশের ডিবি প্রধান। সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে হারুন বলেন, বিএনপির মহাসমাবেশ ঘিরে নাশকতার আশঙ্কা নেই। আগে দেখা যেত ঢাকায় একটা দল মিটিং-মিছিল কিংবা সমাবেশ করলে অন্যরা করতে পারত না। বিরোধী দলকে সুযোগ দেওয়া হতো না। কিন্তু বর্তমানে সে পরিস্থিতি নেই। একই দিনে ২/৩টা দল বড় বড় সমাবেশ করছে। চেকপোস্টের নামে বিরোধী দলের নেতাকর্মীদের হয়রানি করা হচ্ছে কি না- এমন প্রশ্নের উত্তরে হারুন বলেন, ঢাকা শহরে অনেকগুলো গুরুত্বপূর্ণ মোড় রয়েছে, এছাড়াও অনেকগুলো উন্নয়নমূলক কাজ চলছে। সেখানে নিরাপত্তা নিশ্চিত করা আমাদের কাজ। এই শহরে অনেক বহিরাগত আসে। তারা যেন কোনো ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটাতে না পারে এর জন্য চেকপোস্ট। ডিবি কর্মকর্তা বলেন, চেকপোস্ট থাকার কারণে, অপরাধীদের বিরুদ্ধে অভিযান পরিচালনার কারণেই ঢাকা শহরের পরিবেশ সুন্দর। মানুষ সাচ্ছন্দ্যে চলাফেরা করতে পারছে। আমাদের টহল পার্টি না থাকলে, চেকপোস্ট না বসালে ঢাকা শহর অপরাধীদের অভরায়ণ্যে পরিণত হবে। হারুন বলেন, আমরা যখন ছাত্র ছিলাম দেখেছি, বিরোধী দল মতপ্রকাশের স্বাধীনতা পেতো না। তারা সভা-সমাবেশ করতে পারত না। আমরা আইনশৃঙ্খলা বাহিনী প্রতিটি সমাবেশে নিরাপত্তা দিচ্ছি। কোথাও কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি। আমি মনে করি, সারা বাংলাদেশে অনেকগুলো মহাসমাবেশ হয়েছে। কোথাও কোনো ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি। সেহেতু আশাবাদী ২৮ তারিখেও কোনো আশঙ্কা নাই। তবে আমরা সিকিউরিটি প্ল্যান সাজিয়েছি। এছাড়াও আমাদের কমিশনার মহোদয় পর্যাপ্ত নিরাপত্তার ব্যবস্থা করে থাকেন। ডিবি প্রধান বলেন, আমাদের কমিশনার মহোদয় যাদেরকেই অনুমতি দেবেন, তাদের জন্য পর্যাপ্ত নিরাপত্তা দেব। আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি যেন ঠিক থাকে, সাধারণ মানুষ যেন সাচ্ছন্দ্যে আসতে পারে, কোথাও যেন কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা না ঘটে সে লক্ষে আমরা কাজ করব। যাযাদি/ এসএম
Published on: 2023-10-22 10:50:46.303197 +0200 CEST