যায়যায়দিন
গাজীপুরে ৩ বছর আগে মারা যাওয়া ব্যক্তি নাশকতার মামলার আসামি

গাজীপুরে ৩ বছর আগে মারা যাওয়া ব্যক্তি নাশকতার মামলার আসামি

গাজীপুরের কাপাসিয়া থানার নাশকতার মামলায় প্রায় ৩ বছর আগে মারা যাওয়া অবসর প্রাপ্ত এক শিক্ষা কর্মকর্তাকে আসামি করার অভিযোগ উঠেছে। পুলিশের করা মামলায় মৃত ব্যক্তিকে আসামি করায় জেলা জুড়ে চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছে। গত রোববার (২৯ অক্টোবর) গাজীপুরের কাপাসিয়া থানার উপ-পরিদর্শক সালাউদ্দিন বাদি হয়ে কাপাসিয়া থানায় ওই মামলাটি দায়ের করেন। মামলায় ২২জন আসামীর মধ্যে ১৮নং আসামী করা হয়েছে মো. আমিন উদ্দিন মোল্লাকে (৬৫)। তিনি উপজেলার ঘাগুটিয়া ইউনিয়নের খিরাটি গ্রামের আশরাফ আলী মোল্লার ছেলে। মোঃ আমিন উদ্দিন মোল্লা নরসিংদীর মনোহরদী উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা ছিলেন। অবসরের পরই তিনি রাজনৈতিক দল বিএনপির সঙ্গে মুক্ত হন। তার মেয়ে জামাই মো. মোজাম্মেল হক বলেন, গত ২০২১ সালের ২৫ জানুয়ারী তার শ্বশুড় মারা যান । মারা যাওয়ার ২ বছর ৯ মাস পর তার শ্বশুড়কে আসামি করা হয়েছে, বিষয়টি খুবই দুঃখজনক। মামলার এজাহারে বলা হয় কাপাসিয়া সদরের তরগাঁও মেডিকেল মোড় এলাকায় বিএনপি ও জামায়াতের উশৃঙ্খল নেতাকর্মীরা অস্থিতিশীল ও অরাজক পরিস্থিতির সৃষ্টি করার জন্য সঙ্ঘবদ্ধ হয়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গেলে তারা পুলিশকে লক্ষ্য করে একটি ককটেল ফুটিয়ে আতঙ্ক সৃষ্টি করে পালিয়ে যায়। পরে ঘটনাস্থল থেকে তাদের ফেলে যাওয়া অবিস্ফোরিত চারটি ও বিস্ফোরিত একটি ককটেল উদ্ধার হয়। এছাড়াও চারটি পেট্টোল বোমাও উদ্ধার করে পুলিশ। মামলার এজাহারে আমিন উদ্দিন মোল্লার বয়স ৪৫ বছর উল্লেখ করা হয়েছে। এ বিষয়ে কাপাসিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ আবু বকর মিয়া ১৮ নং আসামী সম্পর্কে যাচাই বাছাই করে দেখার কথা বলেন। গাজীপুর জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক শাহ্ রিয়াজুল হান্নান রিয়াজ বলেন, অন্যায় ভাবে আমাদের নেতাকর্মীদের নামে মামলা হচ্ছে, রাতে বাড়ীতে অভিযান হচ্ছে। নেতাকর্মীরা অনেককেই গ্রেপ্তার করা হয়েছে, আবার অনেকেই বাড়ীতে যেতে পারছেন না মামলায় গ্রেপ্তার হওয়ার আশংকায়। এমন কঠিন পরিস্থিতিতেও দলীয় কর্মসূচী পালন করছি আমরা। যতই বাধা আসুক আমরা পেছনে ফিরছি না, হামলা ও মামলা দিয়ে নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গা যাবে না । মৃত ব্যক্তিকে মামলায় অন্তুভূক্তির বিষয়ে গাজীপুর জেলা পুলিশ সুপার (এসপি) কাজী শফিকুল ইসলাম বলেন, এবিষয়ে খোঁজ খবর নেয়া হবে। যাযাদি/ এস
Published on: 2023-11-03 04:12:13.359902 +0100 CET