যায়যায়দিন
খাবারে বিষক্রিয়ায় একই পরিবারের পাঁচ জন হাসপাতালে

খাবারে বিষক্রিয়ায় একই পরিবারের পাঁচ জন হাসপাতালে

চট্টগ্রামের বাঁশখালী উপজেলার চাম্বলে খাবারে বিষক্রিয়ায় অসুস্থ হয়ে চাম্বল ইউপি’র সাবেক ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান ফজল কাদের চৌধুরীসহ একই পরিবারের পাঁচজন অসুস্থ হয়ে পড়ে। পরে তাদের স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এদের মধ্যে ২ জনের অবস্থা সংকটাপন্ন হলে সোমবার ভোর ৪টায় নগরীর পার্কভিউ হাসপাতালে আইসিইউ'তে ভর্তি করা হয়। তাদের অবস্থা অতি সংকটাপন্ন বলে জানায় পরিবার। রোববার (৬ আগস্ট) রাত দশটার সময় উপজেলার চাম্বল ইউনিয়নের পূর্ব-চাম্বল ৫ নম্বর ওয়ার্ড ছালেহ আহমদ মেম্বার প্রকাশ ফজল কাদের চৌধুরীর বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় বিষক্রিয়া অসুস্থরা হলেন, চাম্বল ইউপি’র সাবেক ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান ফজল কাদের চৌধুরী (৫৬), তার স্ত্রী সেতারা বেগম (৪৫), কন্যা ফজিয়া কাদের তিন্নী (২৪), নাতনী তাওশিয়াত ইদনাত (২), বাড়ির কাজের ছেলে মো. জুনাইদ (১১)। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত সময় ( দুপুর ১টা) তাদের জ্ঞান ফিরেনি বলে জানান কর্তব্যরত চিকিৎসক। ক্ষতিগ্রস্ত পরিবার জানায়, ‘ফজল কাদের চৌধুরী (৫৬), ও নাতনী তাওশিয়াত ইদনাত (২) এর অতি অবস্থা সংকটাপন্ন। তাদেরকে নগরীর পার্কভিউ হাসপাতালে আইসিইউ'তে ভর্তি করা হয়েছে। তাদের এখনো পর্যন্ত জ্ঞান ফিরেনি। বাঁশখালী চাম্বল জেনারেল হাসপাতালের চিকিৎসক ইমরুল কায়েস জানান, ‘গতকাল রাত সাড়ে দশটার দিকে একই পরিবারের পাঁচজনকে অচেতন অবস্থায় চাম্বল জেনারেল হাসপাতালে আনা হয়। এদের মধ্যে একটি দুই বছরের শিশু রয়েছে। পরে তাদের মধ্যে ২ জনের অবস্থা সংকটাপন্ন হলে ভোর ৪টায় নগরীর পার্কভিউ হাসপাতালে নিয়ে যায় রোগীর আত্মীয়রা। এ বিষয়ে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের বড় ছেলে মোজাম্বিক প্রবাসী মুনতাসির মাহমুদ বলেন, ‘গতকাল রাত দশটার সময় আমার ছোট বোন সাদিয়া সোলতানা আঁখি ছাড়া বাড়ির সবাই রাতের খাবার শেষ করে। কিছুক্ষণ পর হটাৎ বাবা অসুস্থ হয় পড়লে তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে একে একে মা, বোন, বোনের কন্যাশিশু ও কাজের লোকসহ সবাই হটাৎ অসুস্থ হয়ে পড়ে। তাদের অবস্থা খারাপ হল সবাইকে চাম্বল জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে বাবা ও দুই বছর বয়সী ভাগনীর অবস্থা সংকটাপন্ন হলে তাদের চট্টগ্রামে নিয়ে আসা হয়। বর্তমানে তারা নগরীর পার্কভিউ হাসপাতালে আইসিইউ'তে ভর্তি আছেন। তিনি অভিযোগ করে জানান, এই ঘটনার পর রাত ১২টার সময় যখন ছোটবোন সাদিয়া বাড়ি থেকে প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র আনতে যায়। তখন দেখে বাড়ির সকল দরজা জানালা খোলা। এসময় দেখা যায় মোবাইল ফোন, নগদ টাকা ও স্বর্ণালংকার লুট করে নিয়ে যায় কে বা কারা। আমার ধারণা রাজনৈতিক বিষয়ে পরিবারের সবাইকে প্রাণনাশের জন্য খাবারে বিষাক্ত কিছু দেওয়া হয়েছে। এই ঘটনার প্রকৃত রহস্য উদঘাটনে পুলিশের সহযোগিতা চাই। এ বিষয়ে আমরা আইনগত ব্যবস্থা নিব। বাঁশখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. কামাল উদ্দিন পিপিএম জানান, ‘খাবারের বিষক্রিয়ায় উপজেলার চাম্বলে একই পরিবারের পাঁচ সদস্যের অসুস্থতার খবর পেয়েছি। তবে, এখনো পর্যন্ত তাদের পরিবারের কেউ আমাদেরকে জানায়নি। তারপরও ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠাচ্ছি। তদন্ত সাপেক্ষে ঘটনার প্রকৃত রহস্য উদঘাটন করা সম্ভব।' যাযাদি/ এস
Published on: 2023-08-07 09:11:23.202103 +0200 CEST