নয়াদিগন্ত
৪ ঘণ্টায়ও নিয়ন্ত্রণে আসেনি জুট মিলের আগুন

৪ ঘণ্টায়ও নিয়ন্ত্রণে আসেনি জুট মিলের আগুন

খুলনার রূপসার জাবুসা এলাকার সালাম জুট মিলের অগ্নিকাণ্ড চার ঘণ্টার চেষ্টায়ও এখনো নিয়ন্ত্রণে আসেনি। আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করছে ফায়ার সার্ভিসের ১৬টি ইউনিট। যোগ দিয়েছে নৌবাহিনীর দুটি ইউনিটও। এর আগে বুধবার (৩ এপ্রিল) বিকেলে জুট মিলে এ অগ্নিকাণ্ড ঘটে। খুলনা ফায়ার সার্ভিসের কন্ট্রোল রুমের কর্মকর্তা আব্দুল কাদির বলেন, বিকেল ৫টা ৩৮ মিনিটে আমরা আগুন লাগার সংবাদ পাই। তারপর ফায়ার সার্ভিসের ১১টি ইউনিট ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করছে। এর পর যোগ দিয়েছে আরো ৫টি ইউনিট। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, শুকনো পাট হওয়ায় দ্রুত আগুন ছড়িয়ে পড়েছে। ফলে আগুন নেভাতে ফায়ার সার্ভিস সদস্যদের বেশ বেগ পেতে হচ্ছে। একটি সুতা ও রফতানিযোগ্য পাটজাত পণ্য সেখানে মজুত করা ছিল। ২০১২ সালের দিকে সালাম জুট মিলটি চালু হয়। এখানে মূলত পাটের সুতা উৎপাদন করা হতো। প্রথমে জুটমিলটির ৩ নম্বর গুদামে আগুনের সূত্রপাত হয়। পরে বিভিন্ন গুদামে ছড়িয়ে পড়ে। এ ঘটনায় প্রতিষ্ঠানের স্বত্বাধিকারী এম এম এ সালাম জানান, ৩টি গুদামে ৭৫০ টন উৎপাদিত পণ্য ছিল। যার আনুমানিক মূল্য ১ কোটি ৫০ লাখ টাকা। কাঁচাপাট ছিল ১ হাজার ৩০০ টন যার আনুমানিক মূল্য প্রায় ২০ কোটি টাকা। সব মিলিয়ে প্রায় ১০০ কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। এদিকে ভয়াবহ এ অগ্নিকাণ্ডে দিশেহারা হয়ে পড়েছে মিল কর্তৃপক্ষ ও শ্রমিকরা। তারা জানায়, জুট মিলে প্রচুর পরিমাণে পাট মজুদ ছিল। এ ছাড়া বিদেশে রফতানির জন্যও প্রস্তুত ছিল বিপুল পরিমাণ পাট। দু-এক দিনের মধ্যে শিপমেন্ট করার কথা ছিল। তার আগেই আজ হঠাৎ এই অগ্নিকাণ্ড। ফায়ার সার্ভিসের সহকারী পরিচালক ফারুক হোসেন সিকদার জানান, ফায়ার সার্ভিসের খুলনার বয়রা, রূপসা ও বাগেরহাটের ফকিরহাট থেকে ১৬টি ইউনিট এসে আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ শুরু করে। আগুন এখনো জ্বলছে, আগুন নিয়ন্ত্রণে আসেনি। আগুনে অনেক পাট পুড়ে গেছে। তবে কিভাবে আগুনের সূত্রপাত তা এখনো জানা যায়নি।
Published on: 2024-04-03 19:05:07.172426 +0200 CEST