The Business Standard বাংলা
কয়েক মাস বৃদ্ধির পর মূল্যস্ফীতি সামান্য কমে ৯.৬৩ শতাংশ

কয়েক মাস বৃদ্ধির পর মূল্যস্ফীতি সামান্য কমে ৯.৬৩ শতাংশ

সেপ্টেম্বর মাসে দেশের মূল্যস্ফীতি পরিস্থিতির সামান্য উন্নতি হয়েছে। এ মাসে মূল্যস্ফীতি ৯.৬৩ শতাংশে নেমে এসেছে, আগের মাসে যা ৯.৯২ শতাংশ ছিল। মঙ্গলবার (৩ অক্টোবর) প্রকাশিত বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরোর তথ্য অনুসারে, সেপ্টেম্বরের খাদ্য মূল্যস্ফীতিও ভোক্তাদের জন্য কিছুটা স্বস্তির ইঙ্গিত দিয়েছে। খাদ্য মূল্যস্ফীতি আগস্টের ১২.৫৪ শতাংশ থেকে কমে সেপ্টেম্বরে ১২.৩৭ শতাংশে নেমে এসেছে। এদিকে খাদ্যবহির্ভূত মূল্যস্ফীতি ৭.৯৫ শতাংশ থেকে কমে সেপ্টেম্বরে ৭.৮২ শতাংশ হয়েছে। গত মার্চ থেকে মূল্যস্ফীতি ধারাবাহিকভাবে ৯ শতাংশের উপরে রয়েছে, যা বিশেষ করে নিম্ন-আয়ের মানুষের জীবনযাত্রার ব্যয়ে উল্লেখযোগ্য প্রভাব ফেলেছে। এর আগে আগস্টে দেশে খাদ্য মূল্যস্ফীতি ১২.৫৪ শতাংশ উঠে গিয়েছিল, যা ১৩ বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ। মূল্যস্ফীতি পরিস্থিতির উন্নতি ছাড়াও মজুরি বৃদ্ধির হারেও কিছুটা উন্নতি হয়েছে। সেপ্টেম্বরে দেশের মজুরি বৃদ্ধির হার ৭.৫৮ শতাংশ থেকে বেড়ে ৭.৬৪ শতাংশে উন্নীত হয়েছে। অর্থনীতিবিদরা বলছেন, এই উচ্চ মূল্যস্ফীতির জন্য অভ্যন্তরীণ কারণগুলো দায়ী। এই কারণগুলোর মধ্যে আছে সস্তা ঋণের প্রাপ্যতা, বাজারে স্বার্থান্বেষী গোষ্ঠীগুলোর কারসাজি, দুর্বল পর্যবেক্ষণ ব্যবস্থা, ব্যাংকিং খাত ও অর্থ বাজারের সমস্যা ইত্যাদি।
Published on: 2023-10-03 16:46:14.475351 +0200 CEST