The Business Standard বাংলা
ইন্টারভিউতে যেভাবে নিজের পরিচয় তুলে ধরবেন, যেসব শব্দ ব্যবহার করা উচিত

ইন্টারভিউতে যেভাবে নিজের পরিচয় তুলে ধরবেন, যেসব শব্দ ব্যবহার করা উচিত

কোনো চাকরির ইন্টারভিউতে একটি প্রশ্ন প্রায় কমন বলা যায়, 'আপনার সম্পর্কে কিছু বলুন'। প্রশ্নটি ঘুরিয়েও করতে পারে, তবে জানতে চাওয়া হবে একই বিষয়। আর এ প্রশ্নের জবাবেই আপনাকে সবচেয়ে বেশি আত্মবিশ্বাসী এবং সাবলীল হতে হবে। ইন্টারভিউতে সফলতার জন্য এ প্রশ্নের সুন্দর উত্তর প্রয়োজন। বর্তমান বাজারে অনেক চাকরি বিদ্যমান, সে সাথে প্রতিদ্বন্দ্বিতাও বেশি। তাই সংক্ষেপে এবং সাবলীলভাবে তুলে ধরতে পারলে নিয়োগকর্তাদের কাছে নিজেকে অন্যদের থেকে আলাদা হিসেবে তুলে ধরা সম্ভব। *যে প্রশ্ন করা হবে* নিজের পরিচয় তুলে ধরার প্রশ্ন বিভিন্নভাবেই করা হতে পারে। যেমন, আপনার সম্পর্কে কিছু বলুন, আপনার পেশাজীবনের বর্ণনা দিন, পাঁচ শব্দে আপনার পরিচয় দিন (তিন বা সাত; যে কোনো শব্দও হতে পারে), সহজ বাক্যে নিজেকে তুলে ধরুন, আপনাকে ব্যাখ্যা করে এমন কয়েকটি শব্দ বলুন। যেভাবেই প্রশ্ন করুক না কেন, যিনি ইন্টারভিউ নিচ্ছেন তিনি জানতে চান, আপনার জ্ঞান, আপনার অতীত সাফল্য, পেশাজীবন এবং সেই সাথে প্রতিষ্ঠানে আপনি কীভাবে কাজ করেছেন এবং মানুষের সাথে কীভাবে যোগাযোগ করছেন । পাশাপাশি, এ প্রশ্ন আসলে ইন্টারভিউ শুরু করার ধাপ। আপনার অতীতের কাজ বা শিক্ষাজীবন নিয়ে মূলত এখান থেকেই প্রশ্ন করা হবে। আপনি ইন্টারভিউতে কতদূর যেতে পারবেন তার একটি অনুমান আপনার দেওয়া উত্তর থেকেই পেয়ে যান চাকরিদাতা। আপনার সাথে কোন বিষয় নিয়ে আলোচনা করা হবে সেটিও আপনার উত্তর থেকেই আসবে। *যেসব শব্দ ব্যবহার করা উচিত* উত্তর দেওয়ার ক্ষেত্রে অবশ্যই আপনি সৎ থাকবেন, তবে একই সাথে চাকরি করতে ইচ্ছুক প্রতিষ্ঠানের সাথে সম্পৃক্ত করে উত্তরগুলো দেওয়ার চেষ্টা করবেন। প্রত্যাশিত পদের সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ, নিজের এমন অভিজ্ঞতায় জোর দিবেন। যেমন আপনি যদি ফাইন্যান্স সংশ্লিষ্ট চাকরির ইন্টারভিউ দেন, তখন আগের চাকরির বিশ্লেষণধর্মী কাজের উপর জোর দিতে পারেন। যদি প্রকিউরমেন্ট বিভাগের চাকরির ইন্টারভিউ দেন তাহলে কোনো লেনদেনে আপনার সাফল্যের কথা তুলে ধরুন। এ ক্ষেত্রে কিছু বিশেষ শব্দে জোর দেওয়া যেতে পারে। *উদ্যমী, প্রণোদিত এবং আগ্রহী:* নিয়োগকর্তারা এমন প্রার্থী চান যারা কাজের প্রতি আগ্রহী এবং যত্নশীল। এমন লোক চায় যারা ভালো কিছু করে দেখাতে চায়। তাই নিজের আগ্রহের জায়গাগুলো তুলে ধরুন, কীভাবে আপনি উদ্যমী এবং আপনার উৎসাহের কারণ ব্যাখ্যা করুন। *শিখতে আগ্রহী, আত্ন-উন্নোয়নে মনোযোগী, দক্ষ এবং মানিয়ে নিতে সক্ষম:* পেশাজীবনে  আপনি কীভাবে উন্নতি করতে চান, নিজেকে কোথায় দেখতে চান এবং সংগঠনে আপনি কীভাবে কাজ করতে চান তা জানতে চায় নিয়োগকর্তারা। তারা আপনার বর্তমান পারফরম্যান্স দিয়ে নিয়োগ দিতে চায়, একই সাথে ভবিষ্যতে আপনি কতটা অবদান রাখতে পারবেন সেটিও যাচাই করতে চায়। আবার বর্তমান বিশ্ব খুব দ্রুত বদলে যাচ্ছে। নিয়োগকর্তারা দেখতে চান আপনি পরিবর্তনের সাথে খাপ খাওয়াতে পারেন কিনা। তাই ইন্টারভিউতে আপনার ভবিষ্যৎ উন্নতি এবং শিক্ষণ চেষ্টা নিয়ে কথা বলুন, অতীতে কীভাবে পরিস্থিতির সাথে মানিয়ে নিয়েছেন সেটি তুলে ধরুন। *সম্পর্ক স্থাপনে দক্ষতা, দলবদ্ধভাবে কাজ করা সক্ষমতা ও যোগাযোগে দক্ষতা:* প্রায় কোনো কিছুই একা করা যায় না। একদমই একান্ত কাজগুলোতেও অন্যদের মতামত প্রয়োজন হয় আবার কোম্পানির কাজে অংশীজনদের সাথেও যোগাযোগ করতে হয়। তাই নিয়োগকর্তারা আপনার যোগাযোগ দক্ষতা এবং দলবদ্ধভাবে কাজের অভিজ্ঞতা সম্পর্কে জানতে চায়। সম্পর্ক তৈরি ও রক্ষায় আপনি দক্ষ, সেটিও তারা দেখতে চান। তাই ইন্টারভিউতে তুলে ধরুন, কীভাবে সমস্যা সমাধানে আপনি অন্য সহকর্মীর সাথে আলোচনা করেছেন, দলের কোনো সদস্যের সাহায্য প্রয়োজন হলে কীভাবে এগিয়ে গেছেন। সহকর্মীদের সাথে সুসম্পর্ক তৈরিতে আপনার ইচ্ছার কথা তুলে ধরুন। *নেতা, সমাধানদাতা:* নিয়োগকর্তারা চান আপনি নিজে উদ্যোগ নিন এবং সমস্যা সমাধানে ঝাপিয়ে পড়ুন। আপনি নেতৃত্ব দেওয়ার মতো পদের জন্য ইন্টারভিউ দেন বা না দেন; নিয়োগকর্তারা দেখতে চায় আপনার মধ্যে নেতৃত্বের গুণাবলী আছে। আপনার আশেপাশের মানুষকে প্রভাবিত এবং প্রণোদিত করতে পারছেন কিনা বুঝতে চায়। তাই আপনি বলুন, কীভাবে চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি হয়ে আপনি দলকে নেতৃত্ব দিয়েছেন এবং অন্যদের কাছ থেকে সর্বোচ্চটা আদায়ে কীভাবে উৎসাহ দিয়েছেন। *নির্ভরযোগ্য, ফলাফলে বিশ্বাসী এবং সুশৃঙ্খল:* প্রতিষ্ঠান জানতে চায় আপনি প্রত্যাশিত ফলাফল দিতে পারবেন কিনা, আপনি ধারাবাহিকভাবে অর্পিত দায়িত্ব পালনে সক্ষম কিনা। পাশে বসে সমালোচনা অনেক মানুষই করতে পারে, কিন্তু নিয়োগকর্তা চায় কর্মীরা একে অন্যকে সাহায্য করুক এবং সাফল্য নিয়ে আসুক। তাই সুনির্দিষ্টভাবে আপনার অর্জন এবং কীভাবে কোনো প্রজেক্ট বাস্তবায়নের সাফল্য পেয়েছেন তা তুলে ধরুন। *দক্ষ, যোগ্য, প্রযুক্তিগতভাবে এগিয়ে:* প্রত্যাশিত চাকরির সঙ্গে সংশ্লিষ্ট বিষয়ে আপনি যোগ্য কিনা সেটিও অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ। নিয়োগকর্তা চাকরির সঙ্গে সম্পৃক্ত সব যোগ্যতা সম্পর্কে জানতে চায়। এবং একই সাথে আপনি প্রয়োজনীয় প্রযুক্তিতে দক্ষ সেটিও নিশ্চিত করা হয়। *সৎ, বিশ্বাসযোগ্য এবং চারিত্রিক শুদ্ধতা:* অবশ্যই আপনার ব্যবহার ও আচরণগত দিকও ইন্টারভিউতে প্রভাব ফেলবে। আপনি যেসব বক্তব্য দেবেন এবং উদাহরণ তুলে ধরবেন সেখানে যেন প্রতিষ্ঠান এবং দলের প্রতি আপনার আচরণগত সততা উঠে আসে। *প্রতিশ্রুতিবদ্ধ, ভবিষ্যতমুখী:* আজকাল মানুষ খুব জলদি চাকরি বদলায়।  তাই নিয়োগকর্তা এমন প্রার্থী চান যারা কোম্পানির প্রতি, তাদের ব্যবসা এবং ব্যবসার ভবিষ্যতে প্রতি প্রতিশ্রুতিবদ্ধ থাকবে। আপনি এখন এবং ভবিষ্যতে কোম্পানির প্রতি নিবেদিত থাকবেন সেটি দেখতে চায় নিয়োগকর্তা। তাই আপনার উৎসাহের জায়গা দেখান, কোম্পানির কাজে প্রতি আপনার আগ্রহের কথা জানান। *জ্ঞান এবং অভিজ্ঞতা শেয়ার করুন* উপরের তালিকা থেকে নিজেকে বর্ণনা করার জন্য আপনি যে শব্দগুলি ব্যবহার করেন তার পাশাপাশি আপনার জ্ঞান (কোন কিছু সম্পর্কে ধারণা) এবং আপনার অভিজ্ঞতা; উভয় বিষয়েই কথা বলুন। শুধু আপনার যোগ্যতার তালিকা দেখাবেন না, বরং গল্প বলুন এবং উদাহরণ দিন। এভাবে আপনি নিয়োগকর্তার কাছে আরো বেশি বিশ্বাসযোগ্য হয়ে উঠবেন। একই সাথে কথায় সংক্ষিপ্ত কিন্তু সম্পূর্ণ হওয়ার বিষয়ে সতর্ক থাকুন। প্রশ্নের উত্তর দিতে যাতে দীর্ঘ সময় না যায়। যা জিজ্ঞেস করছে তার সাথে উত্তরে সামঞ্জস্যতা আনুন, এটি খুব গুরুত্বপূর্ণ। *আত্মবিশ্বাসী এবং বিনয়ী হন* আত্মবিশ্বাসী, পাশাপাশি বিনয়ী হতে ভুলবেন না। নিয়োগকর্তা যদি আপনার আত্মবিশ্বাসে প্রতি আকৃষ্ট হয়ও, বিনয়ের অভাবে হয়তো আবার নেতিবাচক ধারণা নিতে পারে। তারা এমন কাউকে নিয়োগ দিতে চান না, যিনি বিশ্বাস করেন তার শেখার কিছু নেই। যারা মনে করেন কোম্পানির কাজ ও ভবিষ্যৎ সম্পর্কে তারা সবই জানেন। *অবাচনিক যোগাযোগে সতর্ক হোন* নিয়োগকর্তারা প্রায় ৯৩ শতাংশ তথ্য অমৌখিক উৎস থেকে সংগ্রহ করে। যার মধ্যে রয়েছে আপনার অভিব্যক্তি, আপনার চোখের ভাষা, আপনার অঙ্গভঙ্গি ইত্যাদি। নিশ্চিত করুন যেসব কথা বলেছেন তার সঙ্গে আপনার আচরণ সামঞ্জস্যপূর্ণ। আপনি যদি আপনার দুর্দান্ত যোগাযোগ দক্ষতার উদাহরণ দেন, তবে নিশ্চিত করুন যে সংক্ষিপ্ত এবং স্পষ্টভাবে আপনি কথা বলছেন। আর এসব উপায়েই পছন্দের প্রার্থীর তালিকায় অগ্রাধিকার পাওয়ার সুযোগ তৈরি হয়।
Published on: 2023-10-05 17:56:50.026802 +0200 CEST