The Business Standard বাংলা
আইএমএফের ঋণ কর্মসূচি কিছু নীতি সার্বভৌমত্বের ক্ষেত্রে আত্মসমর্পণ: দেবপ্রিয় ভট্টাচার্য

আইএমএফের ঋণ কর্মসূচি কিছু নীতি সার্বভৌমত্বের ক্ষেত্রে আত্মসমর্পণ: দেবপ্রিয় ভট্টাচার্য

আইএমএফের ৪.৭ বিলিয়ন ডলারের ঋণ কর্মসূচিকে দেশের কিছু নীতি সার্বভৌমত্বের আত্মসমর্পণ বলে মনে করেন প্রখ্যাত অর্থনীতিবিদ ও সেন্টার ফর পলিসি ডায়ালগের (সিপিডি) ডিস্টিঙ্গুইশুড ফেলো ড. দেবপ্রিয় ভট্টাচার্য। শনিবার (২৯ এপ্রিল) রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে সিপিডি ও ইউরোপীয় ইউনিয়ন কর্তৃক যৌথভাবে আয়োজিত 'ট্যাক্সিং দ্য ডিজিটাল ইকোনমি: ট্রেড-অফস অ্যান্ড অপরচুনিটিজ' শীর্ষক এক সংলাপে বক্তব্য দেওয়ার সময় দেবপ্রিয় এ মন্তব্য করেন। তিনি বলেন, 'আইএমএফ ঋণ নেওয়ার মাধ্যমে আমরা অন্তত কিছু নীতি সার্বভৌমত্বের ক্ষেত্রে আত্মসমর্পণ করেছি। আমরা তাদের শর্তাবলি মেনে নিয়েছি।' দেবপ্রিয় ভট্টাচার্য বলেন, আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিলের (আইএমএফ) সহায়তা কর্মসূচি নেওয়ার মতো বড় অর্থনৈতিক সিদ্ধান্তগুলো সংশ্লিষ্ট সংসদীয় কমিটির নির্বাচিত প্রতিনিধিসহ মূল স্টেকহোল্ডারদের পাশ কাটিয়ে নেওয়া হয়েছে। 'আইএমএফের ঋণ নেওয়ার অনুমোদন দেওয়ার আগে এ নিয়ে সংসদীয় স্থায়ী কমিটিতে আলোচনা হলো না। এমনকি মন্ত্রিসভার অর্থনীতিবিষয়ক মন্ত্রিসভা উপকমিটিতেও আলোচনা হয়নি।' স্থায়ী কমিটি কিংবা কেবিনেট সম্পৃক্ত ছিল না। জ্যেষ্ঠ সরকারি কর্মকর্তারা সই করলেন। তিনি প্রশ্ন রাখেন, 'বিদ্যুৎ-সারের দাম বেড়েছে, এর দায়িত্ব কে নেবে? জনপ্রতিনিধিদের অংশগ্রহণ ছাড়া এ ধরনের সংস্কার কীভাবে এগিয়ে যাবে?' আইএমএফের মতো বিদেশি উন্নয়ন অংশীদারদের হস্তক্ষেপের কারণে দেশের ধীরগতির অর্থনৈতিক সংস্কারেরও সমালোচনা করেন এই অর্থনীতিবিদ। সংস্কারে স্টেকহোল্ডারদের দৃষ্টিভঙ্গির প্রতিফলন ঘটানোর পাশাপাশি প্রধান অর্থনৈতিক সিদ্ধান্ত গ্রহণের প্রক্রিয়াগুলোতে রাজনৈতিক সম্পৃক্ততার ওপরও জোর দেন তিনি। সিপিডির নির্বাহী পরিচালক ড. ফাহমিদা খাতুনের সভাপতিত্বে ও সঞ্চালনায় সংলাপটিতে মূল বক্তব্য উপস্থাপন করেন সিপিডির ডিস্টিঙ্গুইশড ফেলো অধ্যাপক মোস্তাফিজুর রহমান। মূল বক্তব্যে মোস্তাফিজুর রহমান দ্রুত বর্ধনশীল ডিজিটাল অর্থনীতিকে করের আওতায় আনার পরামর্শ দেন। তিনি সরকারকে গুগল, ফেসবুক, ইউটিউবসহ প্রযুক্তি জায়ান্টগুলোকে—যাদের এখনও এদেশে স্থানীয় ট্যাক্স নিবন্ধন অফিস নেই—জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) করের আওতায় আনার জন্য ব্যবস্থা নিতে সরকারের প্রতি আহ্বান জানান।
Published on: 2023-04-29 16:58:59.556292 +0200 CEST