The Business Standard বাংলা
ক্যাভিয়ার থেকে ট্রাফলস – বিশ্বের সবচেয়ে দামি ১০ খাবার

ক্যাভিয়ার থেকে ট্রাফলস – বিশ্বের সবচেয়ে দামি ১০ খাবার

খাদ্য জীবনধারণে অপরিহার্য, অথচ দিন দিন যে হারে মূল্যস্ফীতি বাড়ছে – তাতে খাদ্য ক্রয়ে নাভিশ্বাসই উঠছে সাধারণ মানুষের। ধনীদের অবশ্য খাদ্য নিয়ে দুশ্চিন্তা করতে হয় না। বরং নানান স্বাদের দামি সব খাবারের প্রতিই ঝোঁক থাকে স্বচ্ছল শ্রেণির। তাদের রসনার তালিকায় থাকা এবং বিশ্বের সবচেয়ে দামি ১০ খাবার নিয়েই এ আয়োজন। *আলমাস ক্যাভিয়ার* মাছপ্রিয় বাঙালির চোখ কপালে উঠবে মাছের ডিমের এই দাম শুনলে। হ্যাঁ, কেজিপ্রতি সাড়ে ৩৪ হাজার ডলার দাম এই ক্যাভিয়ারের – যা একমাত্র সংগ্রহ করা হয় ইরানি বেলুগা স্টার্জন নামক মাছ থেকে। এই প্রজাতি হুসো হুসো বলেও পরিচিত। বাণিজ্যিক তথ্য পরিবেশক মার্কিস সূত্রে জানা যায়, ইরানের স্টার্জন মাছ দুই ধরনের ক্যাভিয়ার – বেলুগা ও আলমাস – উৎপন্ন করে। এরমধ্যে বেলুগা ক্যাভিয়ারের দাম কেজিপ্রতি ২৪ হাজার ডলার। কিন্তু, শুধুমাত্র আলবিনো (জেনেটিক কারণে শ্বেত বর্ণ হওয়া) মাছের পেট থেকেই পাওয়া যায় আলমাস ক্যাভিয়ার। এজন্যই দাম আরো ১০ হাজার ডলার বেশি। এখানেই শেষ নয়, আলবিনো মাছটির বয়স অন্তত ১০০ ঊর্ধ্বে হওয়া চাই। কারণ, মাছ যতো বয়স্ক হয় তার ডিমেও ততোটা মোলায়েম ভাব আসে। গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ডসের তথ্যমতে, কাস্পিয়ান সাগরের সবচেয়ে দূষণহীন অঞ্চলে – ইরানের উপকূলীয় জলরাশিতে কেবল পাওয়া যায় আলমাস উৎপাদক বেলুগা স্টার্জন। নির্মল প্রাকৃতিক পরিবেশের কারণে আলবিনো স্ত্রী স্টার্জনের গায়ের রঙ উজ্জ্বল সাদা দেখায়। তাদের চোখের রঙ হয় গোলাপি। আর ডিম হয় সাদা বর্ণের – ক্রিমি মাখন ও নোনা স্বাদের। *জাফরান* জাফরানকে একবাক্যে বলা যায় মসলার রানি – স্ত্রী জাফরান ফুলের গর্ভমুণ্ড শুকানোর পরই যা পাওয়া যায়। এর আছে অনন্য স্বাদ ও গন্ধ। খাঁটি জাফরান চেখে দেখলে বুঝবেন – এর স্বাদ ও গন্ধ অনেকটাই ফুলেল, মধুর মতোন তবে কিছুটা তিক্ত। মাত্র এক গ্রাম ভালো মানের জাফরান ১০ থেকে ২০ ডলার পর্যন্ত দরে বিকোতে পারে। সবচেয়ে বেশি উৎপন্ন হয় ইরানে। স্পেন, মরক্কো, ইরান ও ভারতীয় উপমহাদেশের রান্নায় এক বিলাসী অনুষঙ্গ জাফরান। *কোবে বিফ* জাপানের ওয়াগইয়ু জাতের গরুর মাংসই হলো উন্নত মানের কোবে বিফ। তবে 'কোবে' মানের এক মর্যাদাপূর্ণ স্বীকৃতি সে দেশে। কোনো ওয়াগইয়ু গরু যদি পশ্চিম জাপানের হুয়ুগো অঞ্চলে জন্মায় ও পালন করা হয়, এবং তার মাংস যদি জাপানেই প্রক্রিয়াজাত করা হয় – কেবল তাহলেই কোবে বিফ হিসেবে বিবেচনা করা হয়। যুক্তরাষ্ট্রে রপ্তানি করা প্রতি আউন্স কোবে বিফের দাম ২৫ থেকে ৫০ ডলার পর্যন্ত হয়। তবে রেস্তোরাঁয় গুনতে হয় আরো বেশি। মাংসে পাতলা চর্বির পরদ স্তর থাকায় স্বকীয় এক বৈশিষ্ট্য রয়েছে এই মাংসের। ওয়াগইয়ু গরুর উন্নত, পুষ্টিকর খাদ্যগ্রহণ যার অন্যতম কারণ। *ব্লু-ফিন টুনা* নীল পাখনার টুনা মাছ – জাপানে সুশি ও সাশিমি খাদ্য সংস্কৃতির এক অনবদ্য অংশ। উচ্চ ফ্লেভারযুক্ত স্বাদ ও মোলায়েম বৈশিষ্ট্য থাকায় জাপান ছাড়াও বিশ্বের অন্যান্য দেশে ব্যাপক কদর ব্লু-ফিন টুনার। তবে এই জনপ্রিয়তাই প্রজাতিটিকে বিপন্ন করছে। এরমধ্যেই আটলান্টিক, প্রশান্ত ও ভারত মহাসাগরের ব্লু-ফিন টুনার জাতগুলো অতি-আহরণের ফলে বিপন্ন প্রজাতিতে পরিণত হয়েছে। যত বিরল হচ্ছে, পাল্লা দিয়ে বাজারদরও সেভাবেই বাড়ছে। জাপানে নিলামে বিকোয় পেল্লায় সব ব্লু-ফিন টুনা। চলতি বছরের জানুয়ারিতে টোকিওতে ২১২ কেজি ওজনের একটি ব্লু-ফিন টুনা বিক্রি হয়েছে ২ লাখ ৭৩ হাজার ডলারে। অর্থাৎ, প্রতিকেজি ১,২৮৭ ডলারে কিনেছেন সর্বোচ্চ দরদাতা। সুশি রেস্তোরাঁয় এগুলো ছোট ছোট টুকরোয় কেটে, আরো নানান অনুষঙ্গ যোগ করে বিক্রি করা হয়। যার দাম ১০ থেকে ৮০ ডলার পর্যন্ত হতে পারে। *সাদা ট্রাফলস* সাদা বা আলবা ট্রাফলস বিশ্বের সবচেয়ে দামি ট্রাফলস। ইতালির পিয়েডমন্ট অঞ্চলের বনে জন্মায় কন্দজাতীয় এই মাশরুম। ইতালির পাশাপাশি ক্রোয়েশিয়া ও স্লোভানিয়ার কিছু অঞ্চলেও ফলে। আসলে বনের মাটির নিচে থাকা এক ধরনের ফাঙ্গাসের শিরা থেকেই এটি পাওয়া যায়। এর রয়েছে, ওক ফল ও রসুনের ফ্লেভার। বনের গাছপালার শেকড়ের সাথে বিশেষ সম্পর্ক রয়েছে ফাঙ্গাসটির। বংশবিস্তারের জন্য বন্যপ্রাণীদের ওপরই নির্ভরশীল। *ভোজনযোগ্য সোনার পাতা* পেস্ট্রি বা কেকের সজ্জায় ভোজনযোগ্য সোনার পাতার স্তর দেওয়া হয়। সোনা ২২ থেকে ২৪ ক্যারেট মানের হলেই কেবল তা খাওয়া যায়। তবে এর নিজস্ব কোনো স্বাদ নেই, এতে সামান্য পরিমাণ প্রাকৃতিক রুপাও থাকে। এ ধরনের সোনার পাতের দাম প্রতি পাউন্ডে ১৬৯ ডলারের বেশিও হতে পারে। *কোপি লুয়াক কফি* ইন্দোনেশিয়ার এক ধরনের গন্ধগোকুল প্রজাতি – এশিয়ান পাম সিভেট। কফির বীজ খেয়ে মলের সাথে তা আবার ত্যাগ করে তারা। আর তা থেকেই তৈরি হয় এই কোপি লুয়াক কফি। আসলে গন্ধগোকুলের অন্ত্রে কফির বীজ গাজন ঘটে এবং তা খণ্ড খণ্ড আকারে মলের সাথে নিঃসৃত হয়। এরপর তা সংগ্রহ করে ভালোভাবে ধুয়ে, রোস্ট করা হয়। আপনার হয়তো রুচি এরমধ্যেই চলে গেছে। কিন্তু, কদরকারীরা বলেন, কোপি লুয়াক সমৃদ্ধ ও মসৃণ স্বাদের। তাতে পাওয়া যায়- চকলেট ও ক্যারামেলের ফ্লেভারও। বন থেকে সংগ্রহের পর, এক পাউন্ড কফি বিনের দাম সর্বোচ্চ ৬০০ ডলার পর্যন্ত হতে পারে। আর রেস্তোরাঁয় বসে স্বাদ নিতে চাইলে প্রতিকাপে গুনতে হতে পারে অন্তত ১০০ ডলার। *এলভিশ হানি* তুরস্কের আর্তভিন শহরে অবস্থিত ১,৮০০ মিটার গভীর এক গুহা থেকে সংগ্রহ করা হয় এই মধু। এরজন্য মৌমাছি পালন করতে হয় না। বন্য মৌমাছিই আশেপাশের বনফুল থেকে মধু সংগ্রহের পর গুহার মধ্যে জমা করে। ব্যতিক্রমী ও স্বকীয় স্বাদের পাশাপাশি, এর উৎপাদন স্থলের বৈচিত্রও দামি করে তুলেছে এলভিশ হানি। প্রতিকেজি যা ৫,৩৩৩ ডলার বিকোতে পারে। *আইবেরিয় শুকরের মাংস* ২৪ থেকে ৩৬ মাস বয়সী পূর্ণবয়স্ক কালো শুকরের পেছনের রানের মাংসই হলো আইবেরিয় হ্যাম বা জামন আইবেরিকো। উৎপাদন করা হয় আইবেরিয় অঞ্চলে – স্পেন ও পর্তুগালে। মাংস প্রক্রিয়াকরণের পর তা লবণ দিয়ে শুকানো ও দীর্ঘদিন সংরক্ষণ করা হয়। মাংস পুরোনো করার এই কৌশলকে বলা হয় 'এজিং'। আইবেরিকো হ্যামের ক্ষেত্রে যা সর্বোচ্চ তিন বছর পর্যন্ত হতে পারে। দীর্ঘদিন ধরে মাংস সংরক্ষণ করায় আইবেরিকো হ্যামের প্রতিটি রানের মূল্য ৫০০ থেকে ৪,৫০০ ডলার পর্যন্ত হতে পারে। *ঝিনুক* যুক্তরাষ্ট্রের উপকূলের নোনা ও স্বাদু পানি মিশ্রিত অঞ্চলের ঝিনুকই নাকি সবচেয়ে সুস্বাদু। এরমধ্যে কফিন বে কিং নামের এক প্রজাতি পূর্ণবয়স্ক হয় সাত বছরে। তারপরই সেগুলো সংগ্রহের উপযুক্ত হয়। দক্ষিণপূর্ব এশিয়া ও পশ্চিমা দেশগুলোয় রয়েছে ঝিনুকের ব্যাপক চাহিদা। সে তুলনায়, ভালো মানের ঝিনুকের জোগান সীমিত। ফলে বন্য (চাষ করা নয়) এক থলে পূর্ণবয়স্ক ঝিনুকের দাম বন্দর পর্যায়েই ৭০ ডলার পর্যন্ত হতে পারে।
Published on: 2023-07-10 17:17:13.713858 +0200 CEST