The Business Standard বাংলা
আজ থেকে আগামী নির্বাচন পর্যন্ত ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের দখলে থাকবে: মেয়র তাপস

আজ থেকে আগামী নির্বাচন পর্যন্ত ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের দখলে থাকবে: মেয়র তাপস

ঢাকার বায়তুল মোকাররম মসজিদের দক্ষিণ প্লাজায় আওয়ামী লীগের শান্তি সমাবেশ চলছে। আজ বুধবার (১২ জুলাই) বেলা আড়াইটায় এ সমাবেশ শুরু হয়। সমাবেশে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র শেখ ফজলে নূর তাপস বলেছেন, আজ থেকে আগামী নির্বাচন পর্যন্ত ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগ দখলে রাখবে। কোন নৈরাজ্য মেনে নেয়া হবে না। আগামী নির্বাচনে দেখিয়ে দেয়া হবে সুষ্ঠু নির্বাচন কত প্রকার ও কী কী। এসময় তিনি সারাদেশের নেতাকর্মীদের বিএনপির সন্ত্রাস মোকাবেলায় ঘরে ঘরে দুর্গ গড়ে তোলার আহবান জানান। তাপস বলেন, 'আজকে ঢাকা ফুঁসে উঠেছে। আমরা আর কোনো নৈরাজ্য বরদাস্ত করব না'। তিনি বলেন, 'আজ থেকে আমরা আর ঘরে যাব না, যেমন ৭১ -এ মানুষ রণাঙ্গনে গেছে, তেমনি আমরা রাজপথে থাকব'। এতে যোগ দিয়ে আ. লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আজম দাবি করেন, বিএনপি মহাসচিবের নেতৃত্বে বাংলাদেশকে বিদেশিদের হাতে তুলে দেয়ার ষড়যন্ত্র চলছে। সমাবেশে দেওয়া ভাষণে মির্জা আজম বলেন, 'মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের নেতৃত্বে তারা (বিএনপি) বাংলাদেশকে বিদেশিদের হাতে তুলে দিতে চায়। সেজন্য এই ষড়যন্ত্র, চক্রান্ত'। এর আগে বিএনপির সকল 'আন্দোলন ব্যর্থ' হয়েছে বলেও মন্তব্য করেন তিনি। বিএনপি নানা প্রস্তুতি নিয়ে তাদের সমাবেশ করছে। তাদের বিপরীতে মাত্র কয়েক ঘণ্টার নোটিশে আ. লীগ শান্তি সমাবেশের আয়োজন করেছে জানিয়ে তিনি বলেন, 'আওয়ামী লীগ রাজপথে আছে। কয়েক ঘণ্টার নোটিশে লাখ লাখ মানুষ সমবেত হয়েছে'। নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, জাতীয় নির্বাচনে সামনে রেখে প্রস্তুতি গ্রহণ করতে হবে। সমাবেশে  আওয়ামী লীগের আরেক সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম কামাল হোসেন বলেন, মির্জা ফখরুল ইসলাম সাহেবকে বলতে চাই। ২০১৫ সালে আপনার নেত্রী এক দফা দিয়েছিল। সে সময় তার কাজের বুয়া ফাতেমা ছাড়া কেউ তার সাথে ছিলেন না। তিনি বলেন, জনগণ আপনাদের ঘরে ফেরত পাঠাবে৷ কামাল বলেন, 'শেখ হাসিনা বাঁচলে বাংলাদেশ বাঁচবে। শেখ হাসিনা এগিয়ে গেলে, বাংলাদেশ এগিয়ে যাবে'। এদিকে বাংলাদেশে সফররত ইউরোপীয় ইউনিয়নের প্রতিনিধিদলের দৃষ্টি আকর্ষণে বিএনপি সমাবেশের ডাক দিয়েছে বলে মন্তব্য করেন আ. লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ। 'আজকের এই সমাবেশ এমন সময়ে হচ্ছে, যখন বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ এগিয়ে সাচ্ছে, বাংলাদেশ উন্নয়নশীল রাষ্ট্র হিসেবে স্বীকৃতি লাভ করেছে। তখন বিএনপি-জামায়াত নতুন করে ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হচ্ছে। তারা আজ সমাবেশ করছে, শোডাউন করছে'। তিনি বলেন, 'আমাদের দেশে বিদেশিরা এসেছেন, ইউরোপীয় ইউনিয়নের প্রতিনিধিরা এসেছেন, আজকে তাদের উপস্থিতিতে বিএনপি শোডাউন করতে চায়। আজকে বিএনপির সঙ্গে জনগণের কোনো সম্পৃক্ততা নেই। বিদেশিরাই তাদের ভরসা। ষড়যন্ত্র আর বিষদেগার করে তারা ক্ষমতায় যেতে চায়'। হানিফ বলেন, 'আমরা বিদেশিদের কাছে কোনো ধর্ণা দেব না। আমরা জনগণের কাছে তুলে ধরব- আপনারা যখন রাষ্ট্র ক্ষমতায় ছিলেন, তখন কি করেছিলেন, আর আমরা কি করেছি। আমরা জনগণকে স্মরণ করিয়ে দিব, আপনাদের নেতা খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে কীভাবে দূর্নীতিতে বাংলাদেশ পাঁচ পাঁচবার বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল'। এভাবে বিএনপির সকল অপকর্ম জনগণের সামনে তুলে ধরা হবে বলে জানান তিনি।
Published on: 2023-07-12 13:49:02.838157 +0200 CEST