The Business Standard বাংলা
নিও, রোজ বা বন্ড: বিখ্যাত যেসব চরিত্র ফিরিয়ে দিয়েছিলেন হলিউড শিল্পীরা

নিও, রোজ বা বন্ড: বিখ্যাত যেসব চরিত্র ফিরিয়ে দিয়েছিলেন হলিউড শিল্পীরা

ফিয়ার অভ মিসিং আউট বা ফোমো বলে একটা কথা আছে — এর অর্থ কোনো কিছু থেকে নিজেকে বঞ্চিত করার ভয়। অনেকের মোবাইলে বেশি আসক্তির কারণ হলে, তারা সোশ্যাল মিডিয়ার অনেক গালগল্প 'মিস' করে ফেলার ভয়ে থাকেন, তাই সারাক্ষণ ফোনেই পড়ে থাকেন। সিনেমায় কাজ করলে অবশ্য এই 'ফোমো'টা স্বয়ংক্রিয়ভাবে তৈরি হয়ে যায়। হলিউডের অনেক প্রখ্যাত অভিনেতাই বিখ্যাত সব চরিত্রে অভিনয়ের সুযোগ থেকে নিজেদেরকে বঞ্চিত করেছেন। সিনেমা জগতের টাইটানিক , পাল্প ফিকশন , দ্য ম্যাট্রিক্স থেকে শুরু করে টিভির দুনিয়ায় গেম অভ থ্রোনস — জনপ্রিয় সব চরিত্রে আমরা দেখতে পেতাম অন্য কোনো অভিনেতাকে। উইল স্মিথ— দ্য ম্যাট্রিক্স (নিও) কিয়ানু রিভসের বদলে আমরা উইল স্মিথকে দ্য ম্যাট্রিক্স -এ নিও চরিত্রে দেখতে পারতাম। কিন্তু ভদ্রলোক ওই চরিত্রে অভিনয়ের প্রস্তাব ফিরিয়ে দিয়েছিলেন। স্মিথ পরে জানান, সিনেমাটির পরিচালক তাকে সিনেমার গুরুত্ব বিষয়ে ভালোমতো বোঝাতে পারেননি। তাই দ্য ম্যাট্রিক্স হাতছাড়া করে তিনি ওয়াইল্ড ওয়াইল্ড ওয়েস্ট -এ কাজ করেন। তবে তার এখনো মনে হয়, যা হয়েছে তা ভালোর জন্যই হয়েছে। 'আমি কৃষ্ণাঙ্গ, এ চরিত্র করলে তাহলে মর্ফিয়াস আর কৃষ্ণাঙ্গ হতেন না,' একবার বলেছিলেন তিনি। ম্যাট ড্যামন— অ্যাভাটার (জেক সুলি) স্যাম ওর্থিংটনকে নেওয়ার আগে ম্যাট ড্যামনকে এ চরিত্রের জন্য প্রস্তাব দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু জেসন বোর্ন ফ্র্যাঞ্চাইজে মনোযোগ দেওয়ার জন্য প্রস্তাব ফিরিয়ে দেন তিনি। এরপর অ্যাভাটার সর্বকালের সর্বোচ্চ আয়ের সিনেমায় পরিণত হয়ে ইতিহাস তৈরি করে। পরিচালক জেমস ক্যামেরন ড্যামনকে সিনেমার মোট লাভের ১০ শতাংশ প্রস্তাব করেছিলেন। ড্যামন রাজি হলে তিনি ২৫০ মিলিয়ন ডলার পেতেন স্রেফ এ সিনেমা থেকেই। 'আমি তো ইতিহাস গড়ে ফেললাম… এত বেশি অর্থ ত্যাগ করা আর কোনো অভিনেতাকে আপনি খুঁজে পাবেন না,' মজা করে বলেছিলেন এ অভিনেতা। ক্লেয়ার ডেনস— টাইটানিক (রোজ) জেমস ক্যামেরনের মাস্টারপিস সিনেমায় অভিনয় করার সুযোগ হাতছাড়া কেবল ড্যামনই করেননি। ক্লেয়ার ডেনসও টাইটানিক সিনেমার রোজ-এর চরিত্র অভিনয় করার সুযোগ হাতছাড়া করেন। পরে চরিত্রটিতে অভিনয় করেছিলেন কেট উইন্সলেট। ডেনসের ভাষায়, এ চরিত্রে অভিনয় করা বা পরে এটির এত খ্যাতি সামলানোর 'এলেম' তার ছিল না। টাইটানিক -এর বদলে লিওনার্দো ডিক্যাপ্রিওর বিপরীতে রোমিও + জুলিয়েট সিনেমায় অভিনয় করেছিলেন। অন্যদিকে রোজ চরিত্র ফিরিয়ে দেওয়া আরেকজন অভিনেত্রী হলেন গিনেথ প্যালট্রো। লরেন্স ফিশবার্ন— পাল্প ফিকশন (জুলস) পাল্প ফিকশন -এ স্যামুয়েল এল. জ্যাকসনের জুলস চরিত্রে আর কাউকে চিন্তা করা যায়? অনেকে মানতেই চাইবেন না সেটা। কিন্তু ওই চরিত্রটি হতে পারত লরেন্স ফিশবার্নের। সিনেমাটির পরিচালক কুয়েন্টিন টারান্টিনো পরে এক পডকাস্টে জানিয়েছিলেন, তিনি ফিশবার্নের কথা মাথায় রেখেই জুলসের চরিত্রটি লিখেছিলেন। কিন্তু ফিশবার্নের অভিনয়দলের লোকজনেরা তাকে পরামর্শ দিয়েছিলেন ওই চরিত্র না করতে। কারণ জুলসের চরিত্রটি সিনেমায় একটি পার্শ্বচরিত্র ছিল আর ফিশবার্নের দল তাকে তখন মূল চরিত্রাভিনেতা হিসেবে প্রতিষ্ঠা করার চেষ্টা করছিলেন। তখন ব্যাড কম্পানি সিনেমায় এলেন বার্কিনের বিপরীতে অভিনয় করেন ফিশবার্ন। টারান্টিনো পরে অবশ্য স্বীকার করেছিলেন, ফিশবার্নের ওই কৌশল ঠিকই ছিল। 'কিন্তু ওরা আমাকে হালকাভাবে নিয়েছিল,' বলেন তিনি। ' পাল্প ফিকশন থেকে তিনি (ফিশবার্ন) যেটা হারিয়েছিলেন, সেটা দ্য ম্যাট্রিক্স -এ পেয়ে গিয়েছিলেন,' এমনটাও বলেছিলেন টারান্টিনো। লিয়াম নেসন— গোল্ডেনআই (জেমস বন্ড) 'নেসন, লিয়াম নেসন' তার জেমস বন্ড ক্যারিয়ার শুরু করতে পারতেন গোল্ডেনআই দিয়ে। কিন্তু স্ত্রীর কথা শুনে ওই চরিত্রে কাজ করা থেকে বাদ দিয়েছিলেন তিনি, রোলিং স্টোন কে এমনটাই জানিয়েছিলেন নেসন। 'তুমি জেমস বন্ড হিসেবে অভিনয় করলে আমাদের বিয়েটা কিন্তু হচ্ছে না,' স্ত্রী এমনটাই বলেছিলেন লিয়াম নেসনকে। টেকেন তারকার ভাষ্যে, 'সে আমাকে একটা জেমস বন্ড আলটিমেটাম দিয়েছিল।' তবে নেসন একটা বিষয় স্পষ্ট করে দিয়েছেন। বন্ড হিসেবে কাজ করার জন্য তাকে সরাসরি প্রস্তাব দেওয়া হয়নি। কিন্তু যেসব তারকাকে এ চরিত্রের জন্য বিবেচনা করা হচ্ছিল, তাদের একজন ছিলেন তিনি। শন কনারি— দ্য লর্ড অভ দ্য রিংস (গ্যান্ডাল্ফ) ইয়ান ম্যাককেলেনকে নেওয়ার আগে এ চরিত্রে অভিনয় করার জন্য শন কনারিকে প্রস্তাব দেওয়া হয়েছিল। সিনেমাটির পরিচালক পরে এক সাক্ষাৎকারে জানান, কনারিকে প্রস্তাব দেওয়ার কয়েক বছর পরও তার কাছ থেকে কোনো উত্তর আসেনি। কিন্তু পরে জানা গিয়েছিল, চিত্রনাট্য কনারি ঠিকই পড়েছিলেন, কিন্তু সিনেমার বিষয়বস্তু ধরতে পারেননি। ব্রায়ান কক্স— গেম অভ থ্রোনস (রবার্ট ব্যারাথিয়ন) সাকসেশন তারকা ব্রায়ান কক্সের ঝুলিতে এইচবিও'র আরেকটি হিট সিরিজ থাকতে পারত। কিন্তু গেম অভ থ্রোনস -এর কিং ব্যারাথিয়নের চরিত্রটি ফিরিয়ে দিয়েছিলেন তিনি। এর অন্যতম বড় কারণ ছিল, চরিত্রের জন্য তাকে বেশি অর্থ প্রস্তাব করা হয়নি। নিজের স্মৃতিকথায় এমনটাই লিখেছেন তিনি। 'প্রাথমিকভাবে এ চরিত্রের জন্য পারিশ্রমিক খুব একটা আকর্ষণীয় ছিল না, আর অনেক আগেই আমাকে মেরে ফেলা হতো,' লেখেন তিনি। এমা ওয়াটসন— লা লা ল্যান্ড (মিয়া) লা লা ল্যান্ড -এর মূল দুই চরিত্রে অভিনয় করেছেন এমা স্টোন ও রায়ান গসলিং। কিন্তু প্রাথমিকভাবে এ দুটো চরিত্রে কাজ করার প্রস্তাব দেওয়া হয়েছিল এমা ওয়াটসন ও মাইলস টেলারকে। বিউটি অ্যান্ড দ্য বিস্ট -এর রিমেকে কাজ করার জন্য প্রতিশ্রুতিবদ্ধ ছিলেন ওয়াটসন, তাই লা লা ল্যান্ড কে না বলতে হয়েছিল তাকে। পরে এ সিনেমায় অভিনয়ের জন্য অস্কারে সেরা অভিনেত্রীর পুরস্কার পান এমা স্টোন। জ্যাক নিকোলসন— দ্য গডফাদার (মাইকেল কর্লিওনি) দ্য গডফাদার -এ আল পাচিনোর মাইকেল কর্লিওনি চরিত্র ফিরিয়ে দিয়েছিলেন জ্যাক নিকোলসন। ১৯৮২ সালে এক সাক্ষাৎকারে নিকোলসন জানিয়েছিলেন, তার মনে হয়েছিল ওই চরিত্রটি একজন ইতালীয় অভিনেতার করা উচিত। তবে মার্লোন ব্র্যান্ডোর সঙ্গে কাজ করার ইচ্ছে ছিল তার। কিন্তু চিত্রনাট্যে তার চরিত্রের সঙ্গে মার্লোনের চরিত্রের কোনো দৃশ্য ছিল না। পরে ১৯৭৬ সালে দ্য মিসৌরি ব্রেকস -এ ব্র্যান্ডোর সঙ্গে কাজ করেন নিকোলসন। এমিলি ব্লান্ট— আয়রন ম্যান ২ (ব্ল্যাক উইডো) বাধ্য হয়ে আয়রন ম্যান ২ -এ ব্ল্যাক উইডোর চরিত্রে অভিনয়ের প্রস্তাব ফিরিয়ে দিয়েছিলেন এমিলি ব্লান্ট। কারণ ওই সময় গালিভার্স ট্রাভেলস -এ অভিনয়ের জন্য চুক্তিবদ্ধ ছিলেন তিনি। তার জায়গায় অভিনয় করেন স্কারলেট জোহানসন। প্রায় দীর্ঘ ১১ বছর ধরে এ চরিত্রে অভিনয় করেছেন তিনি। আমান্ডা সেফ্রিড— গার্ডিয়ান অভ দ্য গ্যালাক্সি (গামোরা) প্রতিদিন সবুজ মেকাপ পরা ও খোলার হুজ্জতে যেতে চাননি, তাই গার্ডিয়ান অভ দ্য গ্যালাক্সি 'র গামোরা চরিত্রে অভিনয়ের প্রস্তাব ফিরিয়ে দিয়েছিলেন আমান্ডা সেফ্রিড। অবশ্য অন্য কারণও ছিল। সেফ্রিড একবার বলেছিলেন, 'একটা কথা বলা গাছ ও একটা র্যাকুনের সিনেমা কে দেখতে চাইবে। অবশ্য এখন তো ব্যাপারটা স্পষ্ট, আমি ভীষণ ভুল ধারণা করেছিলাম।'
Published on: 2023-07-14 17:32:29.119873 +0200 CEST