The Business Standard বাংলা
রূপপুরের পথে ইউরেনিয়াম, ঢাকা-পাবনা রুটে বন্ধ যান চলাচল

রূপপুরের পথে ইউরেনিয়াম, ঢাকা-পাবনা রুটে বন্ধ যান চলাচল

রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের ইউনিট-১ এর পারমাণবিক জ্বালানি বা ইউরেনিয়ামের প্রথম চালান ঢাকা থেকে পাবনার প্রকল্প এলাকায় নেওয়া হচ্ছে। শুক্রবার সকাল সাতটার দিকে ইউরেনিয়াম বহনকারী গাড়িগুলো গাজীপুর ছেড়ে যায় বলে দৈনিক প্রথম আলোর প্রতিবেদনে এসেছে। এ সময় বিশেষ নিরাপত্তাবলয় নিশ্চিত করতে আজ ভোর পাঁচটা থেকেই পাবনা-ঢাকা রুটে সব ধরনের পরিবহন চলাচল বন্ধ আছে। পাবনার পুলিশ সুপার আকবর আলী মুন্সী গণমাধ্যমকে বলেন, "পাবনা-ঢাকা রুটের বঙ্গবন্ধু সেতুপথে প্রচণ্ড যানজট হয়। ফলে ইউরেনিয়াম বহনকারী যানবাহন আসতে সমস্যা হতে পারে। এ কারণেই সড়কটি যানজটমুক্ত রাখতে আজ ভোর পাঁচটা থেকে বাস চলাচল বন্ধ রাখা হচ্ছে।" তবে ইউরেনিয়াম প্রকল্পে পৌঁছে গেলেই বাস চলাচল শুরু হবে বলে জানান তিনি। প্রথম আলোর প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, ইউরেনিয়াম বহনকারী গাড়িগুলো ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের সফিপুর এলাকায় পৌঁছালে একটি গাড়িতে যান্ত্রিক ত্রুটি দেখা দেয়। পরে মেরামত শেষে সকাল সাতটার দিকে গাড়িগুলো ছেড়ে যায়। বৃহস্পতিবার (২৮ সেপ্টেম্বর) দুপুরে রাশিয়া থেকে ঢাকা বিমানবন্দরে ইউরেনিয়ামের এই চালান পৌঁছায়। উল্লেখ্য, আগামী ৫ অক্টোবর রূপপুর প্রকল্পে এ জ্বালানি আনুষ্ঠানিকভাবে প্রকল্প কর্তৃপক্ষের কাছে হস্তান্তর করা হবে। রাশিয়ার রাষ্ট্রীয় পারমাণবিক শক্তি করপোরেশনের (রোসাটম) মহাপরিচালক আলেক্সি লিখাচেভ এ জ্বালানি হস্তান্তর করবেন। রাশিয়ার সহায়তায় পাবনার রূপপুরে বাংলাদেশের প্রথম পরমাণু বিদ্যুৎকেন্দ্রটি নির্মিত হচ্ছে। বাংলাদেশের পরমাণু শক্তি কমিশন ২০১৫ সালের ২৫ ডিসেম্বর এ প্রকল্প বাস্তবায়নে রাশিয়ার পরমাণু শক্তি সংস্থা রোসাটমের অঙ্গপ্রতিষ্ঠান অ্যাটমস্ট্রয় এক্সপোর্টের সঙ্গে চুক্তি করে। ২৪০০ মেগাওয়াট ক্ষমতার দুই ইউনিট মিলিয়ে এই বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণে প্রাথমিকভাবে এক লাখ ১৩ হাজার কোটি টাকারও বেশি খরচ ধরা হয়েছে। এদিকে পারমাণবিক জ্বালানি পরিবহনজনিত দুর্ঘটনার ক্ষতিপূরণ বাবদ ৪ হাজার ৩৪৬ কোটি টাকার আর্থিক গ‍্যারান্টি দিয়েছে অর্থ মন্ত্রণালয়।
Published on: 2023-09-29 07:05:49.543042 +0200 CEST