The Business Standard বাংলা
রোববার স্বতন্ত্র সংসদ সদস্যদের সাথে গণভবনে সাক্ষাৎ করবেন প্রধানমন্ত্রী

রোববার স্বতন্ত্র সংসদ সদস্যদের সাথে গণভবনে সাক্ষাৎ করবেন প্রধানমন্ত্রী

দ্বাদশ জাতীয় সংসদের স্বতন্ত্র সংসদ সদস্যদের আগামী রোববার গণভবনে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বুধবার (২৪ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় আওয়ামী লীগের দফতর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া গণমাধ্যমকে এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, "আগামী রোববার (২৮ জানুয়ারি) সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টায় দ্বাদশ জাতীয় সংসদের স্বতন্ত্র সংসদ সদস্যদের প্রধানমন্ত্রী তাঁর সরকারি বাসভবন গণভবনে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন।" দলের একাধিক নেতা জানিয়েছে, স্বতন্ত্র সংসদ সদস্যদের সঙ্গে বৈঠকে আওয়ামী লীগ সভাপতি তৃণমূলের বিভেদ কমানোর বার্তা দিতে পারেন। দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ ২৬৬ আসনে প্রার্থী দিলেও– স্বতন্ত্র হিসেবে নির্বাচনে অংশ নেওয়ার সুযোগ পান মনোনয়ন-বঞ্চিতরা। পরে ভোটের মাঠে নৌকার প্রার্থীকে হারিয়ে ৬২ জন স্বতন্ত্র প্রার্থী বিজয়ীও হন। এর মধ্যে ৬০ জনই আওয়ামী লীগের। আলোচনা আছে, দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিরোধী জোট হতে পারে স্বতন্ত্র প্রার্থীদের নিয়েই। কারণ, দল হিসেবে মাত্র মাত্র ১১টি আসন পেয়েছে জাতীয় পার্টি।  যদিও আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের এর আগে জানিয়েছেন, জাতীয় পার্টিই হবে দ্বাদশ সংসদের বিরোধী দল। এদিকে জাতীয় নির্বাচনে প্রার্থিতা উন্মুক্ত করে দেওয়ায় আওয়ামী লীগের তৃণমূলে বিভেদ বেড়েছে। কোথাও কোথাও সহিংসতার ঘটনাও ঘটেছে। এই অবস্থায়, আসন্ন উপজেলা পরিষদ নির্বাচনসহ স্থানীয় সরকারের কোনো নির্বাচনেই দলীয় প্রতীক 'নৌকা' না রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে আওয়ামী লীগ। দলের তৃণমূলে যে কোন্দল ও বিভক্তি তৈরি হয়েছে, সেটি মেটাতে বিভাগীয় নেতাদের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। সারাদেশে আওয়ামী লীগের আটটি বিভাগীয় কমিটি রয়েছে। মূলত এসব কমিটির মাধ্যমেই তৃণমূলের বিরোধ মেটানোর পরিকল্পনা করেছে দলটি। গত সোমবার আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সভাশেষে দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের সাংবাদিকদের বলেন, দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন উপলক্ষে আমাদের স্বতন্ত্র প্রার্থী, দলীয় প্রার্থী- সব মিলিয়ে সেখানে কিছু কিছু মান অভিমান, অন্তর্কলহ ছিল। কিছু কিছু জায়গায় যার রেশ এখনো শেষ হয়নি। এ অবস্থায় সব বিভাগীয় কমিটিকে আমাদের নেত্রী নির্দেশনা দিয়েছেন, বিভিন্ন জেলার যেসব অভ্যন্তরীণ সমস্যা, সেগুলো নিরসনে সংশিষ্ট সকলকে ঢাকায় ডেকে এনে সমাধান খুঁজে বের করা হবে এবং সিদ্ধান্ত দেওয়া হবে।
Published on: 2024-01-24 15:54:35.585668 +0100 CET