The Business Standard বাংলা
ফের ভ্যাট বসানোর পরিকল্পনা এনবিআরের, মেট্রোতে চলাচলের খরচ বাড়বে

ফের ভ্যাট বসানোর পরিকল্পনা এনবিআরের, মেট্রোতে চলাচলের খরচ বাড়বে

২০২৪-২৫ অর্থবছর থেকে মেট্রোর টিকিটের ওপর জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) ফের মূল্য সংযোজন কর (ভ্যাট) আরোপের পরিকল্পনা করছে বলে জানিয়েছেন সংস্থাটির কর্মকর্তারা। ফলে জুলাই থেকে ঢাকা মেট্রোরেলে চলাচলের খরচ বাড়তে পারে যাত্রীদের। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন এনবিআর কর্মকর্তা দ্য বিজনেস স্ট্যান্ডার্ডকে বলেন, মেট্রো পরিষেবা পুরোপুরি চালু না হওয়ায় সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী এনবিআর গত বছর মেট্রোরেলের টিকিটের দামে ভ্যাট ছাড় দিয়েছে। 'এখন এনবিআর এই খাত থেকে আরও রাজস্ব আদায়ের লক্ষ্যে সেই [ভ্যাট] মওকুফ প্রত্যাহার করতে চায়,' বলেন তিনি। সিদ্ধান্তটি জানাতে ঢাকা ম্যাস ট্রানজিট কোম্পানি লিমিটেডের (ডিএমটিসিএল) তারা বৈঠক করবেন বলেও জানান ওই কর্মকর্তা। তিনি আরও বলেন, মেট্রো পরিষেবার ভ্যাট থেকে রাজস্ব বোর্ড বছরে প্রায় ১০০ কোটি টাকা রাজস্ব আদায় করতে পারবে। ওই এনবিআর কর্মকর্তা জানান, আইন অনুযায়ী, এসি ও নন-এসি উভয় ধরনের রেলওয়ে পরিষেবার জন্য ১৫ শতাংশ ভ্যাট প্রযোজ্য। মূল্য সংযোজন কর ও সম্পূরক শুল্ক আইন ২০১২-এর ধারা ২৬-এ শীতাতপ-নিয়ন্ত্রিত (এসি) ও প্রথম-শ্রেণির নন-এসি রেল পরিষেবা—কোনোটিতেই যাত্রী পরিবহনের জন্য ভ্যাট ছাড় দেওয়া হয়নি। মেট্রোরেল যেহেতু সম্পূর্ণ শীতাতপ-নিয়ন্ত্রিত, তাই এই পরিষেবার ওপর ১৫ শতাংশ ভ্যাট প্রযোজ্য বলে জানান তিনি। ওই এনবিআর কর্মকর্তা আরও বলেন, ১৫ শতাংশ ভ্যাট আরোপের পর ন্যূনতম দূরত্বের টিকিটের মূল্য হবে ২৩ টাকা, যা বর্তমানে ২০ টাকা। আর সর্বোচ্চ দূরত্বের টিকিটের মূল্য ১০০ টাকা থেকে বেড়ে ১১৫ টাকা হবে। ডিএমটিসিএলের উপ-প্রকল্প পরিচালক (জনসংযোগ) নাজমুল ইসলাম ভূঁইয়া টিবিএসকে জানান, বর্তমানে প্রতিদিন গড়ে ২.৭ লাখ যাত্রী মেট্রোরেলে যাতায়াত করেন। তিনি আরও বলেন, ডিএমটিসিএল এখন পর্যন্ত প্রায় ৩ লাখ কার্ড ইস্যু করেছে। তবে কতজন যাত্রী দ্রুত পাস ব্যবহার করছেন, সে সম্পর্কে তাদের কাছে হালনাগাদ তথ্য নেই। সূত্র অনুসারে, এ পর্যন্ত এক দিনে সর্বোচ্চ ২.৭৫ লাখ যাত্রী চলাচল করেছেন। হিসাব অনুযায়ী, গড়ে ২.৭ লাখ যাত্রী মাথাপিছু ৫০ টাকা খরচ করলে মোট টিকিট বিক্রির পরিমাণ দাঁড়ায় ১.৩৫ কোটি টাকা। অতিরিক্ত ১৫ শতাংশ ভ্যাট আরোপ করা হলে এনবিআর প্রতিদিন অতিরিক্ত ২০.২৫ লাখ টাকা রাজস্ব আদায় করতে পারবে। এর ফলে বছরে প্রায় ৭৪ কোটি টাকা বাড়তি রাজস্ব পাবে সংস্থাটি। প্রাথমিকভাবে, ডিএমটিসিএল উত্তরা উত্তর স্টেশন থেকে আগারগাঁও পর্যন্ত এমআরটি-৬ পরিচালনা করলেও বর্তমানে মেট্রোরেল উত্তরা উত্তর স্টেশন থেকে মতিঝিল স্টেশন পর্যন্ত চলছে। ডিএমটিসিএল ২০২৫ সালের মধ্যে কমলাপুর স্টেশন পর্যন্ত কার্যক্রম সম্প্রসারিত করার লক্ষ্য নির্ধারণ করেছে। *মেট্রোরেল চলাচলের মাঝের বিরতি আরও কমানো হবে: কাদের* সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, মেট্রো পরিষেবার ওপর যাত্রীদের নির্ভরতা বৃদ্ধির পরিপ্রেক্ষিতে মেট্রোরেল চলাচলে মাঝের বিরতি (ফ্রিকোয়েন্স) দুই মিনিট করে কমানোর ব্যবস্থা হচ্ছে। সোমবার (১২ ফেব্রুয়ারি) নিজ কার্যালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি বলেন, কারিগরি কারণে বগির সংখ্যা বাড়ানো যায়নি। তবে প্রতি আট মিনিটে একটি করে ট্রেন চালানোর ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। বর্তমান ফ্রিকোয়েন্সি ১০ মিনিট। মন্ত্রী বলেন, 'বিশ্বের কোনো দেশে মেট্রোরেলের বগি পাঁচের বেশি না। বাংলাদেশে ইতিমধ্যে ছয়টি কাজ করছে। এটা ব্যবস্থা (ম্যানেজ) করা হয়েছে। এটি তো একটি কারিগরি-সংক্রান্ত বিষয়। এটা সাধারণ রেলওয়ে না। তবে ফ্রিকোয়েন্সি দুই মিনিট করে কমানোর ব্যবস্থা হচ্ছে।'
Published on: 2024-02-13 06:19:30.851124 +0100 CET